টেস্ট ক্রিকেটকে বিদায় জানালেন জয়াওয়ার্দেনে

  • ১৮ অগাস্ট ২০১৪
mahela jayawardene Image copyright Getty
Image caption মাহেলা জয়াওয়ার্দেনে

জয় দিয়েই টেস্ট ক্রিকেটকে বিদায় জানিয়েছেন শ্রীলংকার অন্যতম সেরা ক্রিকেটার মাহেলা জয়াওয়ার্দেনে।

শ্রীলংকান ব্যাটসম্যান মাহেলা বলছেন পাকিস্তানের সঙ্গে দ্বিতীয় টেস্টের খেলার পর টেস্ট থেকে বিদায় নেওয়ার সিদ্ধান্তকে তিনি সঠিক বলেই মনে করছেন।

কলম্বোতে দ্বিতীয় টেস্টেও পাকিস্তানকে হারিয়ে শ্রীলংকার ২-০ ব্যবধানে সিরিজ জিতে নেওয়ার সময় দলের হয়ে শেষবারের মতো ব্যাট করতে নেমে ৫৪ রানের অনবদ্য একটি ইনিংস খেলেছেন ৩৭ বছর বয়স্ক মাহেলা।

অসাধারণ এই ব্যাটসম্যানকে বিদায় জানাতে সোমবার তাকে কাঁধে নিয়ে মাঠ প্রদক্ষিণ করেন সতীর্থরা। এসময় উপস্থিত ছিলেন শ্রীলঙ্কার প্রেসিডেন্ট মাহিন্দা রাজাপাকশেও।

বিদায় নেওয়ার মুহুর্তে শ্রীলংকার ক্রিকেটকে ধন্যবাদ জানিয়ে মাহেলা জয়াওয়ার্দেনে বলেন টেস্ট ক্রিকেটে তার যাত্রা ছিল খুবই আনন্দের।

''কোনো ক্ষোভ নেই আমার। দীর্ঘসময় ধরে শ্রীলংকার জন্য খেলতে পেরে আমি খুবই গর্বিত ও খুশী। সবগুলো মুহুর্তই আমি দারুণভাবে উপভোগ করেছি। সফলতা ও বিফলতা দুইয়ের মধ্যে দিয়ে এই যাত্রা আমাকে আরো ভাল ক্রিকেটার - আরো ভাল মানুষ করে তুলেছে।''

টেস্ট থেকে অবসরের সিদ্ধান্ত নেওয়ার কথা বেশকিছুদিন ধরেই ভাবছিলেন তিনি এবং তিনি মনে করেন, এটাই তার জন্য সঠিক সময়।

টেস্ট ক্রিকেট থেকে অবসর নেওয়ার সময় রানের সংগ্রহের দিক দিয়ে তার অবস্থান বিশ্বে ১৭ নম্বরে। ১৪৯ টি টেস্টে তার সংগ্রহ ১১,৮১৪ রান। এবং তার গড় রানের সংখ্যা ৪৯.৮৪।

ডান-হাতী এই ব্যাটসম্যান টেস্টে সেঞ্চুরি করেছেন ৩৪টি, তার অর্ধশতকের সংখ্যা ৫০, ডাবল-সেঞ্চুরি ৬টি এবং ট্রিপল সেঞ্চুরি ১টি।

Image copyright AP
Image caption বিদায়ের সময় জয়াওয়ার্দেনেকে কাঁধে নিয়ে মাঠ প্রদক্ষিণ করেন সতীর্থরা

মিঃ জয়াওয়ার্দেনে বলেন, ''এখন আমার সরে যাওয়ার- এবং পরবর্তী প্রজন্মের এগিয়ে আসার সময়।''

''আমার সবসময়ে মনে হয়েছে - একটা দিন আসবে যখন আমার মনে হবে - আমার অবসরের সময় এসেছে। আর সে ভাবনাটা আমার যখনই মাথায় এসেছে- আমি তা কাজে পরিণত করতে উদ্যোগী হয়েছি।''

মাহেলা জয়াওর্য়াদেনে কলম্বোর সিন্‌হালা স্পোর্টস ক্লাবের মাঠে তার টেস্ট কেরিয়ার শেষ করলেন।

এই মাঠেই ২০০৬ সালে তিনি দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে ৩৭৪ রান সংগ্রহ করেন।

ওই একই সালে ইংল্যান্ডে লর্ডসের মাঠে তিনি ১১৯ রান করেন, যেটি তার উল্লেখযোগ্য ইনিংসগুলোর অন্যতম।

Image copyright AFP
Image caption গলে পাকিস্তানের সঙ্গে প্রথম টেস্টের উদ্বোধনী দিনে কুমার সাঙ্গাকারের সঙ্গে মাহেলা জয়াওয়ার্দেনে

তার সতীর্থ ও ঘনিষ্ট বন্ধু কুমার সাঙ্গাকারা বলেছেন ব্যাটসম্যান হিসাবে জয়াওয়ার্দেনে 'তার যুগের একটা মাইলফলক'।

''শ্রীলংকা দলের জন্য তার বিদায় একটা বিশাল ক্ষতি,'' মন্তব্য করেন তিনি।

শ্রীলংকার সাবেক আরেকজন ব্যাটসম্যান এবং বর্তমান সিলেক্টার সানাৎ জায়াসুরিয়া ১৯৯৭ সালে ভারতের বিরুদ্ধে জয়াওয়ার্দেনের টেস্ট অভিষেকের কথা স্মরণ করেন। ওই টেস্টে শ্রীলংকা ভারতের বিরুদ্ধে স্কোর করেছিল ৬ উইকেটে ৯৫২ রান।

''অধিনায়ক হিসাবে, একজন অভিজ্ঞ খেলোয়াড় হিসাবে তিনি সবসময় দলকে তার শ্রেষ্ঠ খেলা দিয়েছেন। তার প্রজ্ঞা, তার খেলা আমরা ভবিষ্যতে মিস্ করব। তিনি একজন খুবই স্মার্ট খেলোয়াড়।''

মি: জয়াসুরিয়া বলেন ২০১৫-য় অস্ট্রেলিয়া ও নিউজিল্যান্ডে বিশ্বকাপে শ্রীলংকার জয়লাভের লক্ষ্য নিয়ে তিনি এখন দলকে সাহায্য করবেন।