সিরিয়ার রাক্কায় বিমানঘাঁটি দখল করেছে আইএস জঙ্গিরা

  • ২৫ অগাস্ট ২০১৪
syria airbase Image copyright n
Image caption বিমানঘাঁটি দখলের পর শহরে আইএস সদস্যদের উল্লাস

সিরিয়ার উত্তরাঞ্চলীয় প্রদেশ রাক্কায় ইসলামিক ষ্টেট বা আইএস জঙ্গিরা সরকারী একটি বিমানঘাঁটি দখল করে নিয়েছে বলে খবর পাওয়া যাচ্ছে।

সিরিয়ার সরকারী সংবাদ সংস্থা সানা বিমানঘাঁটি দখলের খবর নিশ্চিত করে জানিয়েছে, সেখানে সরকারী বাহিনী নতুন করে সংগঠিত হচ্ছে।

গত কয়েকদিনের অভিযানে সরকারি বাহিনী ও ইসলামিক ষ্টেটের কয়েকশ’ সদস্য নিহত হয়েছে।

এদিকে, মধ্যপ্রাচ্যে আইএস জঙ্গিদের তৎপরতা মোকাবেলায় আজ জেদ্দায় এক বৈঠকে শুরু হচ্ছে।

সরকারী সংবাদসংস্থার খবরে বলা হয়েছে তাবকা বিমানঘাঁটি থেকে সরকারী বাহিনীর সদস্যরা পালিয়ে গেছে।

তার আগে বিমানঘাঁটি দখলের লড়াই এ উভয় পক্ষের শতাধিক সদস্য নিহত হয়।

এই বিমানঘাঁটিটি রাক্কা প্রদেশে বাশার আল আসাদ সরকারের সর্বশেষ শক্তঘাটি ছিল।

এদিকে, মধ্যপ্রাচ্যের দেশগুলোতে আইএস জঙ্গিদের তৎপরতা মোকাবেলায় সেখানকার দেশসমূহের আজ জেদ্দায় এক বৈঠকে বসতে যাচ্ছে।

বৈঠকে মিসর, জর্ডান, কাতার এবং সংযুক্ত আরব আমিরাতের পররাষ্ট্রমন্ত্রীরা যোগ দেবেন বলে জানা যাচ্ছে।

এছাড়া ইরাকের নতুন প্রধানমন্ত্রী হায়দার আল আবাদি ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠক করছেন।

ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী মোহাম্মদ জাভাদ জারিফ বলেছেন আইএস পুরো অঞ্চলের জন্যই একটি বিরাট সমস্যা।

মি. জারিফ বলেছেন আইএসের নৈরাজ্য বন্ধের জন্য ইরাক ও কুর্দি সরকারের সাথে কাজ করছে ইরান।

আইএস শুধু ইরাক নয়, পুরো অঞ্চল এমনকি আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়কেই একটি ঝুঁকির মধ্যে ফেলে দিয়েছে।

আমরা বিশ্বাস করি আইএসকে প্রতিহত করতে হলে একটি সমন্বিত উদ্যোগ দরকার।

মি. জারিফ বলেন, আইএস যে গণহত্যা চালাচ্ছে, তা থামাতে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়কে একটি বড় দায়িত্ব নিতে হবে।

ইসলামিক ষ্টেট বা আইএস জঙ্গিরা সাম্প্রতিক মাসগুলোতে সিরিয়ার পূর্ব ও উত্তরাঞ্চলীয় অনেকগুলো প্রদেশ ও জেলা দখল করে নেয়।

যুক্তরাষ্ট্র সম্প্রতি ইরাকের আইএস জঙ্গিদের দমনে সীমিত আকারে বিমান হামলা শুরু করলেও, সিরিয়ার আইএসের বিরুদ্ধে এখনো কোন পদক্ষেপ নেয়নি দেশটি।