রোনাল্ডো, মরিনিউর বিরুদ্ধে কর ফাঁকির অভিযোগ

ছবির কপিরাইট AP
Image caption ক্রিস্টিয়ানো রোনাল্ডো

ফুটবল তারকা ক্রিস্টিয়ানো রোনাল্ডো এবং ম্যানেজার জোসে মরিনিউর বিরুদ্ধে লাখ লাখ ডলার আয়কর ফাঁকি দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে।

নিজেদের উপার্জিত অর্থ অন্য একটি দেশে পাচার করার মাধ্যমে এই কর ফাঁকি দেওয়া হয়েছে বলে বলা হচ্ছে।

বিপুল পরিমাণে তথ্য ফাঁস হয়ে যাওয়ার পর তাদের বিরুদ্ধে এই অভিযোগ উঠেছে।

স্প্যানিশ ফুটবল তারকা রোনাল্ডো এবং ইংলিশ ফুটবল ক্লাব ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের ম্যানেজার মরিনিউর বিরুদ্ধে অভিযোগ উঠেছে যে কর ফাঁকি দেওয়ার উদ্দেশ্যে তারা বিপুল পরিমাণ অর্থ ব্রিটিশ ভার্জিন আইল্যান্ডে সরিয়ে নিয়েছেন।

দুই টেরাবাইট আকারের ফাঁস হয়ে যাওয়া এসব কাগজপত্রের মধ্যে আসল চুক্তিও রয়েছে। আছে গোপনে করা সমঝোতার কাগজপত্রসহ ইমেইলও।

বলা হচ্ছে, ফাঁস হয়ে যাওয়া এসব কাগজপত্রের পরিমাণ প্রায় ১৮ মিলিয়ন।

তবে রোনাল্ডো এবং মরিনিউ দু'জনেই তাদের বিরুদ্ধে আনা এসব অভিযোগ অস্বীকার করেছেন।

তাদের এজেন্টের মাধ্যমে দেওয়া এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, আইনের ভেতরে থেকেই তারা সবকিছু করেছেন।

এজেন্টের কোম্পানি বলেছে, রোনাল্ডো এবং মরিনিউ "পুরোপুরি আইন কানুন মেনেই সব করেছেন। করেছেন স্প্যানিশ ও ব্রিটিশ আইনের ভেতরেই।"

ছবির কপিরাইট PA
Image caption জোসে মরিনিউ

ফাঁস হয়ে যাওয়া লাখ লাখ কাগজপত্রের ওপর ভিত্তি করে তৈরি এসব অভিযোগ ইউরোপের বেশ কয়েকটি সংবাদপত্রে প্রকাশিত হয়েছে।

এগুলোর মধ্যে রয়েছে জার্মান সাময়িকী ডের স্পিগেল, স্পেনের এল মুন্ডু এবং যুক্তরাজ্যের সানডে টাইমস।

এসব সংবাদপত্র বলছে, 'ফুটবল লিকস' শিরোনামে আগামী কয়েক সপ্তাহ ধরে তারা এবিষয়ে ধারাবাহিক প্রতিবেদন প্রকাশ করবে।

বিশ্বের ধনী ও প্রভাবশালী ব্যক্তিরা কিভাবে তাদের কর ফাঁকি দিচ্ছে তার ওপর পানামা পেপার্স কেলেঙ্কারির আট মাস পর ফুটবলারদের কথিত এই কর ফাঁকির তথ্য প্রকাশ করা হলো।

ডাচ এনআরসি সংবাদপত্র বলছে, রোনাল্ডো ব্রিটিশ ভার্জিন আইল্যান্ডে সরিয়েছেন প্রায় ৬৮ মিলিয়ন ডলার, ২০১৪ সালের শেষ দিকে।

সংবাদপত্রটি বলছে, স্ট্রাইকার রোনাল্ডো স্পন্সরশীপ ফি হিসেবে যে অর্থ পেয়েছেন সেটা তিনি সরিয়েছেন আইরিশ একটি কোম্পানির মাধ্যমে।

স্পেনে কর সংক্রান্ত একটি আইন পরিবর্তনের ১১ দিন আগে এই অর্থ সরানো হয়েছে।

পত্রিকাটি বলছে, এবিষয়ে সাংবাদিকরা রোনাল্ডোর কাছে যা জানতে চেয়েছেন আজও তিনি সেসবের উত্তর দেন নি।

বলা হচ্ছে, মরিনিউ সরিয়েছেন ১০ মিলিয়ন পাউন্ড, একটি সুইস অ্যাকাউন্টে, যার মালিক ব্রিটিশ ভার্জিন আইল্যান্ডের একটি কোম্পানি।