গণভোটে হেরে পদত্যাগ করছেন ইতালির প্রধানমন্ত্রী মাত্তিও রেনজি

ইটালির প্রধানমন্ত্রী মাত্তিও রেনজি ছবির কপিরাইট ইপিএ
Image caption আজই প্রেসিডেন্টের কাছে পদত্যাগপত্র জমা দেবেন মাত্তিও রেনজি

সাংবিধানিক সংস্কার প্রশ্নে গণভোটে হেরে পদত্যাগের ঘোষণা দিয়েছেন ইতালির প্রধানমন্ত্রী মাত্তিও রেনজি। ইতালির সংসদে সিনেটরদের ক্ষমতা হ্রাস এবং আকার ছোট করার লক্ষ্যে গণভোটের ডাক দিয়েছিলেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী মাত্তিও রেনজি।

প্রধানমন্ত্রীর মতে এই সাংবিধানিক সংস্কার দেশটির আইন প্রণয়নের প্রক্রিয়ায় গতি ফিরিয়ে আনতে সহায়ক হবে।

যদিও সব কটি বিরোধী রাজনৈতিক দলই এর বিপক্ষে ছিল। তাদের যুক্তি ছিল এর ফলে প্রধানমন্ত্রীর হাতে অনেক বেশী ক্ষমতা কেন্দ্রীভূত হবে।

তবে, আত্মবিশ্বাসী মি. রেনজি ঘোষণা দিয়েছিলেন, গণভোটে হেরে গেলে তিনি পদত্যাগ করবেন। শেষ পর্যন্ত বড় ব্যবধানে হারার বিষয়টি নিশ্চিত হওয়ার পরই পদত্যাগের ঘোষণা দেন তিনি।

ছবির কপিরাইট রয়টার্স
Image caption গণভোটে 'না' জয়ী হওয়ায় রোমের রাস্তায় উল্লাস

রোববার ভোটগ্রহণ শেষে নির্বাচনের ফলাফলের দায় গ্রহণ করে, মধ্যরাতেই এক সংবাদ সম্মেলনে মি. রেনজি বলেন, সোমবারই মন্ত্রীসভার বৈঠকের পর প্রেসিডেন্টের কাছে পদত্যাগপত্র জমা দেবেন তিনি।

এর আগে রোববার ভোটগ্রহণ শেষে বুথ ফেরত জরিপ মাত্তিও রেনজির পরাজয়ের দিকেই ইঙ্গিত দিচ্ছিলো।

সংস্কারের পক্ষে 'হ্যাঁ' ভোট ৪২ থেকে ৪৬ শতাংশ হতে পারে বলে জানায় রাষ্ট্রীয় টেলিভিশন আরএআই।

এই গণভোটে অংশ নিয়েছে প্রায় ৬০ শতাংশ ভোটার, যা কিনা ইতালির বিবেচনায় অনেক বেশি।

ব্রেক্সিটের পর ইউরোপীয় ইউনিয়নের জন্যে এই ভোটের ফলাফল খুবই গুরুত্বপূর্ণ বলে মনে করা হচ্ছে।