আইএসের হাত থেকে রাক্কা উদ্ধারে সেনা পাঠাচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র

রাক্কা যোদ্ধা

ছবির উৎস, Reuters

ছবির ক্যাপশান,

কুর্দি এবং সুন্নি আরব যোদ্ধারা গতমাসে রাক্কা উদ্ধারে অভিযান শুরু করে

সিরিয়ার রাক্কায় তথাকথিত ইসলামিক স্টেট গোষ্ঠির বিরুদ্ধে লড়াই করতে আরো ২০০ জন সেনা সদস্য পাঠাচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র।

মার্কিন প্রতিরক্ষামন্ত্রী অ্যাশ কার্টার একথা জানিয়েছেন।

মধ্যপ্রাচ্যের নিরাপত্তা বিষয়ে কথা বলতে গিয়ে তিনি জানান, সেনা সদস্যদের মধ্যে থাকবে বিশেষ বাহিনীর প্রশিক্ষক, পরামর্শক এবং বোমা নিষ্ক্রিয়কারী দল।

সিরিয়ায় অবস্থানরত মার্কিন স্পেশাল ফোর্সের ৩০০ জন সদস্যের সাথে তারা যোগ দেবেন।

গতমাসে মার্কিন সমর্থিত কুর্দি এবং আরব যোদ্ধারা ঘোষণা দেয় যে তারা রাকা দখলে অভিযান শুরু করেছে।

সিরিয়ান ডেমোক্র্যাটিক ফোর্স বলছে, তারা তথাকথিত ইসলামিক স্টেটের 'রাজধানী' রাক্কার উত্তরাংশে প্রবেশ করেছে।

শনিবার বাহরাইনে একটি বৈঠকে মি. কার্টার বলেন, ২০০ জন অতিরিক্ত সেনারা স্থানীয় যোদ্ধাদের প্রশিক্ষণ, অস্ত্রসজ্জিত করা এবং তাদেরকে প্রেরণা যোগানোর কাজ করবে।

ছবির উৎস, AFP

ছবির ক্যাপশান,

আলেপ্পোতে সরকারী বাহিনীর সাথে যুদ্ধ চালিয়ে যাচ্ছে বিদ্রোহীরা

মার্কিন নেতৃত্বাধীন একটি জোট মূলত: বিমান হামলার মাধ্যমে সিরিয়া এবং পার্শ্ববর্তী ইরাকে আইএসের বিরুদ্ধে লড়াই চালিয়ে যাচ্ছে।

তবে সিরিয়ায় মূল সংঘাতটা হচ্ছে রাশিয়া সমর্থিত সিরিয়ার বাশার-আল-আসাদের সরকার এবং তুরস্ক, গালফ দেশগুলো ও যুক্তরাষ্ট্র সমর্থিত বিদ্রোহী বাহিনীর মধ্যে।

বর্তমানে সিরিয়ার একসময়কার সবচেয়ে বড় শহর, আলেপ্পো মূল একটি যুদ্ধক্ষেত্রে পরিণত হয়েছে। সেখানে সরকারপন্থী বাহিনী বিদ্রোহী নিয়ন্ত্রিত এলাকাগুলো দখল করে যাচ্ছে।

শনিবার বিবিসির সাথে এক সাক্ষাতকারে সিরিয়ায় জাতিসংঘের বিশেষ দূত, স্টেফান ডি মিস্টুরা বলেছেন, সরকার যদি আলেপ্পোতে বিজয়ীও হয়, তারপরও যুদ্ধ পুরোপুরি শেষ হবে না।