ফ্রান্সে জঙ্গি হামলার পরিকল্পনাকারী সন্দেহে তিনজন নারী গ্রেপ্তার

ফ্রান্সের পুলিশ,
ছবির ক্যাপশান,

তিনজন সন্দেহভাজন নারীর খোঁজে অভিযান চলাকালে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর একজন সদস্য ছুরিকাঘাতের শিকার হয়

ফ্রান্সে একটি গাড়ি ভর্তি গ্যাস ক্যানিষ্টার পাবার পর জঙ্গি হামলার পরিকল্পনাকারী সন্দেহে তিনজন নারীকে গ্রেপ্তার করেছে দেশটির পুলিশ।

গ্রেপ্তার তিনজনই উগ্রপন্থী বলে জানিয়েছেন,স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বার্নার্ড ক্যাজেনোভ।

এদিকে, সন্দেহভাজন একজনকে আটক করতে গেলে একজন পুলিশ ছুরিকাঘাতের শিকার হন। এ ঘটনায় মোট সাতজনকে আটক করেছে পুলিশ।

রোববার রাজধানী প্যারিসের কেন্দ্রস্থলে কোয়ে দ্য মন্টাবেল্লোতে হ্যাজার্ড লাইট জ্বালানো এবং নম্বর প্লেট বিহীন ঐ গাড়িটি পরিত্যক্ত অবস্থায় পাওয়া যায়।

ছবির ক্যাপশান,

যেখানে গাড়িটি পাওয়া যায় তার কয়েক মিটারের মধ্যেই বিখ্যাত নটর ড্যাম ক্যাথেড্রাল অবস্থিত

এখান থেকে কয়েক মিটারের মধ্যেই রয়েছে নটর ড্যাম ক্যাথেড্রাল, যেখানে প্রতিবছর লক্ষ লক্ষ পর্যটক বেড়াতে আসেন।

গাড়িটি থেকে পুলিশ অনেকগুলো গ্যাস ক্যানিষ্টার এবং আরবি হরফে লেখা কিছু কাগজপত্র উদ্ধার করে।

এরপরই তিনজন সন্দেহভাজন নারীর খোঁজে অভিযান শুরু করে পুলিশ। অভিযান চলাকালে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর একজন সদস্য ছুরিকাঘাতের শিকার হলে পুলিশ গুলি ছোড়ে।

এরপর ঐ তিনজন নারীকে গ্রেপ্তার করা হয়, যাদের একজন গাড়িটির মালিকের মেয়ে। তাকে এখন নিরাপত্তা হেফাজতে জিজ্ঞাসাবাদ করছে পুলিশ।

দেশটির স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বার্নার্ড ক্যাজেনোভ বলেছেন, গ্রেপ্তার ব্যক্তিরা শীঘ্রই জঙ্গি হামলা চালানোর পরিকল্পনা করছিল। তদন্ত কর্মকর্তারা সম্ভাব্য হামলা ঠেকাতে দ্রুততার সঙ্গে কাজ করছেন বলে জানিয়েছেন তিনি।

নভেম্বরে প্যারিসে সন্ত্রাসী হামলায় ১৩০জন মানুষ নিহত হবার পর থেকেই দেশটিতে জরুরী অবস্থা জারি রয়েছে।