সিরিয়া নিয়ে শান্তি পরিকল্পনায় সম্মত যুক্তরাষ্ট্র ও রাশিয়া

শান্তি পরিকল্পনা ঘোষণার সময়ে রাশিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী সের্গেই ল্যাভরভ এবং মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী জন কেরি ও অন্যন্য কর্মকর্তারা
ছবির ক্যাপশান,

সিরিয়ার সহিংসতা বন্ধে একটি শান্তি পরিকল্পনা ঘোষণা করেছে রাশিয়া এবং যুক্তরাষ্ট্র

সিরিয়ার সহিংসতা বন্ধ করতে একটি যৌথ পরিকল্পনা ঘোষণা করেছে যুক্তরাষ্ট্র এবং রাশিয়া।

জেনেভায় আলোচনার পর দুই পক্ষই সম্মত হয়েছে যে, ১২ই সেপ্টেম্বর অর্থাৎ সোমবার সূর্যাস্তের মধ্যে সিরিয়ার লড়াই বন্ধের প্রক্রিয়া শুরু করা হবে। এরপর দেশটিতে একটি রাজনৈতিক পরিবর্তনের সূচনা হবে বলে আশা করা হচ্ছে।

নতুন পরিকল্পনা অনুযায়ী, সিরিয়ার বিরোধীদের নির্দিষ্ট কয়েকটি স্থানে সামরিক অভিযান বন্ধ করবে সিরিয়ার সরকার। এছাড়া কথিত ইসলামিক স্টেট এবং আল নুসরা যোদ্ধাদের দমন করতে একটি যৌথ কেন্দ্র প্রতিষ্ঠা করবে রাশিয়া এবং যুক্তরাষ্ট্র।

এই চুক্তির ফলে আলেপ্পোসহ অবরুদ্ধ এলাকাগুলোয় চলাচলের সুযোগ তৈরি হবে এবং সেসব এলাকায় মানবিক সহায়তা পৌঁছানো সম্ভব হবে বলে আশা করছে জাতিসংঘ।

ছবির ক্যাপশান,

সিরিয়ার আলেপ্পোয় এখনো ভয়াবহ লড়াই চলছে

জেনেভায় দিনব্যাপী আলোচনার পর দুই দেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রীরা এই পরিকল্পনার কথা ঘোষণা করেন। নতুন পরিকল্পনা অনুযায়ী, সোমবার সূর্যাস্তের মধ্যে সিরিয়ার সহিংসতা বন্ধ করতে হবে।

মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী জন কেরি বলছেন, এর আগে আর কোন পরিকল্পনা এতটা ভালো হয়নি। এটি বাস্তবায়িত হলে সিরিয়ার ভবিষ্যৎ রাজনৈতিক পরিবর্তনে সব পক্ষের অংশগ্রহণের সুযোগ তৈরি হবে।

তিনি বলছেন, এটি বাস্তবায়ন করতে গেলে সিরিয়ার সরকার এবং বিরোধী, উভয়পক্ষকেই চুক্তির শর্তগুলো বাস্তবায়ন করতে হবে।

বিরোধীরা জানিয়েছে, তারা পরিকল্পনাটি মেনে চলবে।

রাশিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী সের্গেই ল্যাভরভ বলছেন, নতুন এই সমঝোতার কথা সিরিয়ার সরকারকে জানিয়েছে রাশিয়া এবং তারা আশ্বাস দিয়েছে, এটি বাস্তবায়নে তারা তৈরি।

তবে মি. ল্যাভরভ বলেছেন, এখনো কিছুটা অবিশ্বাস রয়ে গেছে এবং কোন কোন পক্ষ হয়তো এই সমঝোতাকে ভালোভাবে নাও নিতে পারে।