নিউ ইয়র্কের গুগেনহাইম যাদুঘরে খাঁটি সোনার টয়লেট সিট জনগনের জন্য উন্মুক্ত হচ্ছে

ছবির কপিরাইট Guggenheim
Image caption অ্যামেরিকা নামের এই টয়লেট বানিয়েছেন ইটালির শিল্পী মরিজিও ক্যাতেলান

নিউ ইয়র্কের গুগেনহাইম যাদুঘর দেখতে আসা দর্শনার্থীরা এখন থেকে এক পেনি খরচ করে ব্যবহার করতে পারবেন খাঁটি সোনার একটি টয়লেট সিট।

এই টয়লেট সিটটি গুগেনহাইম যাদুঘরের পাবলিক টয়লেটগুলোর একটিতে বসানো হয়েছে।

যাদুঘরের একটি ইউনি-সেক্স টয়লেট অর্থাৎ নারী পুরুষ উভয়ই ব্যবহার করতে পারে এমন একটি শৌচাগারে রয়েছে সেটি।

ইতালির চিত্রশিল্পী ও ভাস্কর মরিজিও ক্যাতেলান ১৮ ক্যারেট স্বর্ণের এই টয়লেট সিটের নির্মাতা, যা অন্য সাধারণ টয়লেটের মতই ব্যবহার করা যাবে। টয়লেটের নাম দেয়া হয়েছে 'অ্যামেরিকা'।

আরো দেখুন:

সাকা চৌধুরীর স্ত্রী পুত্র খালাস, আইনজীবীর সাজা

রেস্টুরেন্ট বাণিজ্যে সেলফির প্রভাব কতটুকু?

দশনার্থীরা ইচ্ছে করলে ব্যবহার করবেন, কিংবা চাইলে কেবল দেখেও আসতে পারবেন এই শিল্পকর্ম।

ছবির কপিরাইট Getty Images
Image caption মরিজিও ক্যাতেলান বলেছেন, টয়লেটটি অর্থনৈতিক অসমতার প্রেক্ষাপটে তৈরি করা হয়েছে

নিজের শিল্প সম্পর্কে মরিজিও ক্যাতেলান বলেছেন, এটি আসলে অর্থনৈতিক অসমতার প্রেক্ষাপটে তৈরি করা হয়েছে।

যাদুঘর কর্তৃপক্ষ বলছে, এই শিল্পকর্ম আমাদের মনে করিয়ে দেয়, মানবজীবনের কিছু বাস্তবতা থেকে কখনো চাইলেও পালানো যায় না।

ক্যাতেলানের এই শিল্পকর্মকে অনেকে ১৯১৭ সালে মার্সেল দ্যুশাম্পের 'ফাউন্টেইন' নামের প্রশ্রাবখানার ভাস্কর্যের সঙ্গে তুলনা করছেন।

মিলান-ভিত্তিক শিল্পী ক্যাতেলান তার প্ররোচণামূলক ভাস্কর্যের জন্য খ্যাত।

তার উল্লেখযোগ্য কাজের একটি 'লা নোনা ওরা' তে দেখা যায় উল্কার আঘাতে পোপ দ্বিতীয় জন পল মাটিতে পড়ে আছেন।