হোলি আর্টিজানে হামলাকারীদের নতুন ভিডিওর উৎস অনুসন্ধান করছে বাংলাদেশের পুলিশ

ছবির কপিরাইট Google
Image caption গুলশানের হোলি আর্টিজানে হামলাকারী সন্দেহভাজন পাঁচজনের সবাই আছে ওই ভিডিওতে

জুলাই মাসে ঢাকার গুলশানের রেস্তোরাঁয় হামলাকারী পাঁচজন সন্দেহভাজন জঙ্গীর বিবৃতিসম্বলিত একটি নতুন ভিডিও প্রকাশ হবার পর বাংলাদেশের পুলিশ বলছে, এটির উৎস কি এবং কারা জড়িত তা অনুসন্ধান করা হচ্ছে।

গত জুলাই মাসে ঢাকার গুলশানে হোলি আর্টিজান রেস্তোরাঁয় হামলার পর কমান্ডো অভিযানে নিহত সন্দেহভাজন পাঁচজন জঙ্গির কথাবার্তা, হামলার ঘটনা এবং আইএস এর কর্মকাণ্ড সম্পর্কে বক্তব্য তুলে ধরা হয় বাংলা ভাষায় তৈরি এই ভিডিওতে ।

পুলিশের কাউন্টার টেররিজম ইউনিটের উপকমিশনার মহিবুল ইসলাম বিবিসি বাংলাকে বলেছেন, এই ভিডিওটি তাদের নজরে এসেছে, সাইবার ক্রাইম ইউনিট ইতিমধ্যেই এ নিয়ে কাজ করছে।

"এর উৎস কি, তাদের সাথে কারা জড়িত এবং এটা আদ্যে ওই সময় তাদের করা কিনা - এটা আমরা বিশ্লেষণ করছি" - বলেন মি. ইসলাম।

ভিডিওতে পাঁচ জঙ্গীকে বাংলাদেশের পুলিশ, র‍্যাব, সরকারপ্রধান, এবং রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দকে লক্ষ্য করে আক্রমণ চালানোর হুমকি কতটা গুরুত্বে সাথে নেয়া হচ্ছে - এ প্রশ্নের জবাবে মি. ইসলাম বলেন, তাদের শক্তি অনেকাংশেই ক্ষয় হয়েছে বলে তারা মনে করেন।

"আমরা তাদের বিরুদ্ধে অভিযান চালিয়ে যাচ্ছি। কয়েকজন এখনো পলাতক আছে। হয়ত তারা তাদের দুর্বলতা ঢাকার জন্যএসব প্রপাগান্ডা চালিয়ে যাচ্ছে" - বলেন তিনি।

মধ্যপ্রাচ্য ভিত্তিক জঙ্গি সংগঠন তথাকথিত ইসলামিক স্টেট বাংলাদেশের ওপর এ নতুন ভিডিও প্রকাশ করে।

নিহত হওয়ার পর এই জঙ্গিদের যে নাম বা পরিচয় সকলে জেনেছে সেই নাম নয়, বরং ভিডিওতে তাদের পোশাকি নাম ব্যবহার করা হয়।

এ ধরনের একটি ভিডিও দেয়া হবে বলে আইসিসের বাংলা একটা ওয়েবসাইটে প্রথমে ঘোষণা দেয়ার কয়েক ঘণ্টার মধ্যে আরবি ভাষায় একটি ওয়েবসাইটে এটি প্রথম রিলিজ করা হয়।

সম্পর্কিত বিষয়