ক্রিকেটে বাংলাদেশ কেন বিদেশের মাটিতে কম সফল?

ইংল্যান্ডের সাথে ম্যাচে বাংলাদেশের ফ্যানদের উচ্ছ্বাস।
ছবির ক্যাপশান,

ইংল্যান্ডের সাথে ম্যাচে বাংলাদেশের ফ্যানদের উচ্ছ্বাস।

ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে বাংলাদেশের দারুণ জয়ের পর ইংল্যান্ডের সাবেক টেস্ট ক্রিকেট ক্যাপ্টেন ইয়ান বোথাম বলেছেন, "বাংলাদেশকে এখন বিদেশের মাটিতে জিতে দেখাতে হবে। সেটাই তাদের জন্য এখন বড় পরীক্ষা"।

কাছাকাছি সময়ে বাংলাদেশ ক্রিকেটে ব্যাপক চমক দেখিয়েছে।

২০১৪ সাল থেকে দেশের মাটিতে বাংলাদেশ ওয়ানডে সিরিজ জিতেছে ছয়টি।

টেস্ট সিরিজ জিতেছে একটি। কিন্তু দেশের বাইরে বাংলাদেশ একবারই সিরিজ জিতেছে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে।

বাংলাদেশ বিদেশের মাটিতে কেন এতটা সফল নয়?

ক্রীড়া সাংবাদিক মোহাম্মদ ইসাম বলছেন, "বাংলাদেশ গত পাঁচ বছরে সব মিলিয়ে ২৭ টি টেস্ট খেলেছে। তার মধ্যে মোটে ৭টি দেশের বাইরে। আর বাকিগুলো দেশেই। বাংলাদেশ দেশের বাইরে খুব একটা খেলে না। এ কারণেই বাংলাদেশ দেশের বাইরে পারফর্ম করতে পারে না"।

মি: ইসাম আরো বলছেন, ভারতে বাংলাদেশ কোন দ্বিপাক্ষিক ট্যুর করে নি। সামনের বছরের ফেব্রুয়ারিতে একটি সফর রয়েছে।

অস্ট্রেলিয়াতে শেষ সফর ছিলো ২০০৮ সালে একটি ওয়ানডে আর ২০০৩ সালে টেস্ট খেলতে।

ইংল্যান্ডে বাংলাদেশ ২০১০ এ সফর করেছে। দেশের বাইরে বাংলাদেশ শেষ দ্বিপাক্ষিক সিরিজ খেলেছে ২০১৪ সালে ওয়েস্ট ইন্ডিজে।

তিনি বলছেন, "বড় দলতো বাদই দিলাম আসলে কোন জায়গাতেই বাংলাদেশের দ্বিপাক্ষিক সফর নেই। সেটাই মুল কারণ"।

বাংলাদেশ দ্বিপাক্ষিক সিরিজ খেলার তেমন কোন ডাক পায় না বলছিলেন তিনি।

তার কারণ হিসেবে তিনি বলছেন, "ক্রিকেটের যে ক্যালেন্ডার তৈরি হয় সেটা একসময় আইসিসি তৈরি করতো। কিন্তু এখন এখানে অর্থের ব্যাপারটি গুরুত্বপূর্ণ হয়ে উঠেছে। তাই দু'দেশের বোর্ডই এখন আলাপ করে সিরিজ ঠিক করে। অনেক দেশে বাংলাদেশ দল গেলে মাঠে বা টিভি স্বত্বের দিকে থেকে অর্থ উপার্জন অতটা হয়না। এসব কারণে বাংলাদেশ গুরুত্বপূর্ণ দেশগুলোর সাথে খেলার সুযোগ পায় না"।

তবে দেশের মাটিতে জিতেই বাংলাদেশকে বড় দেশগুলোর কাছে নিজেকে প্রমাণ করতে হবে।

আর তাহলেই দ্বিপাক্ষিক সিরিজের দাওয়াত মিলবে, বলছিলেন মোহাম্মদ ইসাম।

"এই যে ইংল্যান্ডকে বাংলাদেশ হারালো সেটিই বাংলাদেশের বিদেশের মাটিতে দ্বিপাক্ষিক সিরিজের ডাক পেতে সবচাইতে বড় যোগ্যতা হিসেবে কাজে দেবে"।

আরও পড়ুন: