মসুলে বর্বরতা: বিদ্যুতের খুঁটিতে ঝুলছে নিহতদের লাশ

মসুলের কাছে যুদ্ধবিধ্বস্ত বাশিকা শহর। এটি এখন ইরাকী বাহিনীর দখলে
ছবির ক্যাপশান,

মসুলের কাছে যুদ্ধবিধ্বস্ত বাশিকা শহর। এটি এখন ইরাকী বাহিনীর দখলে

ইরাকের মসুল শহরে ইসলামিক স্টেট বেসামরিক লোকজনকে হত্যা করে তাদের লাশ প্রকাশ্যে বিদ্যুতের খুঁটি থেকে ঝুলিয়ে রাখছে বলে জানিয়েছে জাতিসংঘ।

জাতিসংঘের মানবাধিকার বিষয়ক কমিশনারের অফিস জানিয়েছে, প্রায় ৪০ জন বেসামরিক নাগরিককে 'বিশ্বাসঘাতকতার' অভিযোগে হত্যা করা হয় বলে তাদের কাছে খবর এসেছে।

জাতিসংঘের এই দফতর জানায়, নিহতদের লাশ বিভিন্ন জায়গায় প্রকাশ্যে ঝুলিয়ে রাখা হচ্ছে।

মসুলের কেন্দ্রস্থলে কেবল মোবাইল ফোন ব্যবহারের কারণেই একজনকে হত্যা করা হয়। ইসলামিক স্টেট সেখানে মোবাইল ফোন ব্যবহার নিষিদ্ধ ঘোষণা করেছে।

উল্লেখ্য, মসুল শহর পুনর্দখলের জন্য জন্য ইরাকী নিরাপত্তা বাহিনী তাদের অভিযান অব্যাহত রেখেছে।

জাতিসংঘ তাদের রিপোর্টে জানায়, ইসলামিক স্টেট তাদের তথাকথিত আদালতের নির্দেশ অনুযায়ী এই বেসামরিক লোকদের হত্যা করে। তাদের বিরুদ্ধে বিশ্বাসঘাতকতা এবং ইরাকী বাহিনীর সঙ্গে সহযোগিতার অভিযোগ আনা হয়।

তাদের ঝুলিয়ে রাখা লাশের ওপর লেখা ছিল, 'বিশ্বাসঘাতক এবং ইরাকী নিরাপত্তা বাহিনীর দালাল'।

ইসলামিক স্টেট শিশু-কিশোরদের হামলার কাজে ব্যবহার করছে বলে দাবি করছে জাতিসংঘ।