ধরা পড়ল আদালত পালানো রুবেল, তখনও হাতে ছিল হাতকড়া

রুবেল
ছবির ক্যাপশান,

অভিযুক্ত রুবেল (মাঝে), শুক্রবার র‍্যাবের হাতে ধরা পড়ার পর।

বাংলাদেশের রাজধানী ঢাকার একটি আদালত চত্বরে অবস্থানের সময় পুলিশের হেফাজত থেকে পালানো একটি চাঞ্চল্যকর ধর্ষণ মামলার আসামীকে দু'দিনের মাথায় ফের গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

ওই সময় তার হাতে হাতকড়া ছিল কিনা সে ব্যাপারে স্পষ্ট করে কিছু বলতে পারেননি ঢাকায় পুলিশের মুখপাত্র মাসুদুর রহমান। কিন্তু আজ ঢাকায় পুলিশের মুখপত্র ডিএমপি নিউজে রুবেলকে ফের গ্রেপ্তারের যে খবর দেয়া হচ্ছে সেখানে বলা হয়েছে, রুবেলকে হাতকড়া পরা অবস্থাতেই গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

খবরে বলা হচ্ছে, মঙ্গলবার সকাল সাড়ে সাতটায় বাড্ডার সুবাস্তু টাওয়ারের সামনে থেকে রুবেলকে গ্রেপ্তার করা হয়।

পরে জিজ্ঞাসাবাদে পুলিশকে রুবেল জানায়, সে রবিবার আদালত চত্বর থেকে পালিয়ে গিয়ে আদালত ভবনের পেছনে একটি মসজিদে আশ্রয় নেয়।

ডিএমপির অনলাইনে বলা হয়েছে: "সেখানে বেশ কিছু সময় অতিবাহিত করার পর মসজিদের পাশে একটি কাপড়ের দোকানে গিয়ে হাতকড়া ঢাকার জন্য কৌশলে হাতের মধ্যে কাপড় ও তুলো পেঁচিয়ে পুনরায় বাড্ডা ফিরে যায়।"

খবর পেয়ে পুলিশ বাড্ডা এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেপ্তার করে।

বাড্ডায় গারো সম্প্রদায়ের একজন তরুণীকে ধর্ষণ করবার চাঞ্চল্যকর এক মামলার মূল অভিযুক্ত এই রুবেল।

তাকে গত শুক্রবার র‍্যাব আটক করে পুলিশের হাতে সোপর্দ করেছিল।

পরে পুলিশের হাত থেকে রুবেল পালিয়ে যাওয়ায় এই বাহিনীর তীব্র সমালোচনা হয়।

এ ঘটনায় কর্তব্যে অবহেলার অভিযোগ তুলে দুজন পুলিশ কর্মকর্তাকে বরখাস্তও করা হয়েছে।