মন্ত্রী ছায়েদুল হকের পদত্যাগ দাবীতে শাহবাগে ফের অবরোধ

অবরোধ
Image caption দুপুরের পর থেকেই শাহবাগ মোড় দখল করে অবরোধ সৃষ্টি করে বিক্ষোভকারীরা।

একদল বিক্ষোভকারী দুপুরবেলা শাহবাগ চত্বর অবরোধ করে দাবী জানায়, মৎস্য ও পশুসম্পদ মন্ত্রী ছায়েদুল হককে হিন্দুদের 'মালাউন' বলার অভিযোগে পদত্যাগ করতে হবে।

সেই সঙ্গে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নাসিরনগরে হিন্দু সম্প্রদায়ের উপর হামলা, ভাংচুর, অগ্নিসংযোগ ও লুটপাটের সাথে জড়িতদের উপযুক্ত বিচার ও শাস্তিও দাবী করেন তারা।

এই বিক্ষোভকারীরা এর আগেও শাহবাগে বিক্ষোভ দেখিয়েছে এবং তারা মন্ত্রী মি. হকের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার জন্য তিন দিনের সময় বেঁধে দিয়েছিল।

আজ (মঙ্গলবার) সেই তিন দিনের আল্টিমেটামের মেয়াদ শেষ হয়েছে।

শাহবাগ থেকে বিবিসি বাংলার শাহনাজ পারভীন জানাচ্ছেন, বিক্ষোভ কর্মসূচীতে মূলত ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ভিত্তিক হিন্দু সম্প্রদায়ের ছাত্র-ছাত্রীরাই যোগ দেন।

তাদের সঙ্গে ছিলেনন অন্যান্য শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোরও হিন্দু ছাত্র-ছাত্রী এবং নানা নাগরিক অধিকার আদায়ের সংগঠন।

Image caption বিক্ষোভকারীদের হাতে ছিল নানাবিধ শ্লোগান সম্বলিত ব্যানার ও ফেস্টুন।

এই অবরোধ এবং বিক্ষোভের এক পর্যায়ে তাদের সঙ্গে এসে সংহতি জানান ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক।

তার সঙ্গে ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীরাও ছিলেন বলে সংবাদদাতা জানাচ্ছেন।

আরেফিন সিদ্দিক সেখানে সংবাদদাতাকে বলেন, তিনি ছাত্রদের দাবীর প্রতি সহানুভূতিশীল।

ঘন্টা দুয়েক বিক্ষোভ প্রদর্শনের পর বিক্ষোভকারীরা নিজে থেকেই অবরোধ প্রত্যাহার করে শাহবাগ থেকে সরে যান।

অবশ্য নাসিরনগরে হামলার প্রেক্ষাপটে হিন্দুদের 'মালাউন' বলে গালি দেবার বিষয়টি অস্বীকার করেছেন মন্ত্রী ছায়েদুল হক এবং চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দিয়েছেন, কেউ এটা প্রমাণ করতে পারলে তিনি পদত্যাগ করবেন।

সোমবারই পুলিশ নাসিরনগর হামলা প্রসঙ্গে একটি তদন্ত প্রতিবেদন দাখিল করেছে যেখানে এই হামলার জন্য স্থানীয় আওয়ামী লীগের মধ্যেকার দ্বন্দ্বের ব্যাপারটিকে দায়ী করা হয়েছে

সম্পর্কিত বিষয়