ধর্ষণের অভিযোগের পর দুবাইয়ে উল্টো গ্রেপ্তার ব্রিটিশ তরুণী

দুবাইয়ের সৈকত
ছবির ক্যাপশান,

ডিটেইনড ইন দুবাইয়ের প্রধান রাধা স্টারলিং বলছেন, ধর্ষণের শিকার নারীদের উল্টো সাজা দেয়ার দীর্ঘ ইতিহাস আছে দুবাইয়ের।

ধর্ষণের অভিযোগ তোলার পর একজন ব্রিটিশ তরুণীকে গ্রেপ্তার করেছে দুবাইয়ের পুলিশ। তাদের অভিযোগ, তিনি বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্কে জড়িত ছিলেন।

যুক্তরাজ্য ভিত্তিক একটি আইনি পরামর্শক প্রতিষ্ঠান, ডিটেইনড ইন দুবাই জানিয়েছে, ওই নারী অভিযোগ করেছিলেন, দুজন ব্রিটিশ পুরুষ তাকে ধর্ষণ করেছে। ছুটিতে থাকার সময় ওই ব্যক্তিরা তার উপর হামলা করে।

এরপর কুড়ি বছর বয়স্কা ওই নারীকে গ্রেপ্তার করা হয়। পরে তাকে জামিনে মুক্তি দেয়া হয়েছে, কিন্তু তার পাসপোর্ট আটক করা হয়েছে।

যে দুজনের বিরুদ্ধে তিনি ধর্ষণের অভিযোগ করেছেন, তাদের বিরুদ্ধে এখনো কোন আনুষ্ঠানিক অভিযোগ গঠনের কথা জানা যায়নি। তবে দুবাইয়ের সংবাদ মাধ্যম খবর দিচ্ছে যে, তাদেরও পাসপোর্ট আটক করা হয়েছে।

ব্রিটিশ পররাষ্ট্র দপ্তর বলছে, তারা এই নারীকে গ্রেপ্তারের খবরের পর তাকে সহায়তা করছেন এবং তার পরিবারের সঙ্গে যোগাযোগ রাখছেন।

ডিটেইনড ইন দুবাইয়ের প্রধান রাধা স্টারলিং বলছেন, ধর্ষণের শিকার নারীদের উল্টো সাজা দেয়ার দীর্ঘ ইতিহাস আছে দুবাইয়ের।

দুবাইয়ের আইনে এ ধরণের অভিযোগে কারাভোগ, বহিষ্কার এমনকি পাথর মেরে হত্যার মতো শাস্তির বিধান রয়েছে।