লিবিয়ায় এক বাংলাদেশী 'পাচারকারী'কে আটকের খবর

অভিযুক্ত পাচারকারী সুজন।
ছবির ক্যাপশান,

অভিযুক্ত পাচারকারী সুজন। তার বাড়ী বাংলাদেশের নোয়াখালীতে বলে জানা যাচ্ছে।

ত্রিপলি থেকে বাংলাদেশের দূতাবাসের ফেসবুকে একটি পোস্ট দিয়ে জানানো হয়েছে, লিবিয়ার পুলিশ এক বাংলাদেশীকে গ্রেপ্তার করেছে, যে দীর্ঘদিন ধরে অবৈধ মানব পাচারের সাথে জড়িত।

তার শিকার মূলত বাংলাদেশীরা এবং এদেরকে লিবিয়ায় আটকে রেখে অতিরিক্ত অর্থও সে আদায় করতো বলে দূতাবাসের ফেসবুক পোস্টে বলা হচ্ছে।

সুজন নামে এই ব্যক্তিকে গত বৃহস্পতিবার বাংলাদেশ দূতাবাসের সহযোগিতায় ত্রিপলির পুলিশ গ্রেপ্তার করে।

এই অভিযুক্ত পাচারকারীর নাম উঠে আসে ত্রিপলি থেকে ১শ কিলোমিটার দূরবর্তী একটি বন্দীশালায় থাকা ৩৭ জন বাংলাদেশী অবৈধ অধিবাসীর সঙ্গে কথাবার্তা বলার মাধ্যমে।

চলতি মাসের গোড়ার দিকে লিবিয়া থেকে ভূমধ্যসাগর হয়ে ইতালি যাবার সময় তিনশ অবৈধ অভিবাসীকে আটক করে লিবিয়ার কর্তৃপক্ষ।

ছবির ক্যাপশান,

এরা সবাই বাংলাদেশী। অবৈধপথে লিবিয়া হয়ে সমুদ্রপথে ইটালি যাবার সময় আটক হয়েছেন। এরা অভিযুক্ত সুজনকে তাদের পাচারকারী হিসেবে শনাক্ত করেছেন।

এদের মধ্যে এই ৩৭ জন বাংলাদেশীও রয়েছে।

গত ৮ই নভেম্বর আরেক ফেসবুক পোস্টের মাধ্যমে আটক ওই বাংলাদেশীদের খবরও জানিয়েছিল ত্রিপলির বাংলাদেশ দূতাবাস।

তারা সেসময় আটককৃতদের একটি ছবি প্রকাশ করেছিল, যেখানে দেখা যায়, সবার মাথা ন্যাড়া।

ওই ফেসবুক পোস্টে দূতাবাস এই বাংলাদেশীদের সব ধরণের সহায়তা করবারও প্রতিশ্রুতি দেয়।