রোহিঙ্গাদের এক হাজারেরও বেশি বাড়ি ধ্বংস হয়ে গেছে: হিউম্যান রাইটস ওয়াচ

মংডুর একটি মুসলিম অধ্যুষিত গ্রামে গত অক্টোবর মাসে অগ্নিসংযোগের পর. ছবির কপিরাইট Getty Images
Image caption মংডুর একটি মুসলিম অধ্যুষিত গ্রামে গত অক্টোবর মাসে অগ্নিসংযোগের পর.

মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যে রোহিঙ্গাদের একটি গ্রামের এক হাজারেরও বেশি বাড়ি ধ্বংস হয়ে গেছে, স্যাটেলাইটে ধারণ করা বিভিন্ন চিত্র বিশ্লেষণ করে এ তথ্য দিচ্ছে হিউম্যান রাইটস ওয়াচ।

সোমবার তাদের এক প্রতিবেদনে এ তথ্য প্রকাশ করা হয় যদিও দেশটির সরকার এ কথা অস্বীকার করেছে।

বাংলাদেশ সীমান্তের কাছাকাছি মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যে গত অক্টোবর থেকে দেশটির সেনাবাহিনী অভিযান চালাচ্ছে।

এই অভিযানে রাখাইনে বসবাসরত রোহিঙ্গা মুসলমানদেরকে নির্বিচারে হত্যা, মহিলা ও কিশোরীদের ধর্ষণ, তাদের বাড়িঘরে অগ্নিসংযোগ ও লুটপাটের ব্যাপক অভিযোগও আছে।

জাতিসংঘ বলছে, সহিংসতার ঘটনায় এ পর্যন্ত সেখানকার ত্রিশ হাজার মানুষ গৃহহীন হয়ে পড়েছে।

গত ৯ই অক্টোবর মিয়ানমারের রাখাইন সীমান্ত চৌকিতে এক হামলার জের ধরে অভিযান শুরু করে দেশটির সেনাবাহিনী।

তাদের অভিযানে ৭০ জন নিহত হয়েছে এবং চারশোরো বেশি নাগরিককে তারা আটক করেছে বলে রাষ্ট্রীয় মাধ্যমের খবরে বলা হচ্ছে।

যদিও মানবাধিকার কর্মীরা বলছেন নিহতের সংখ্যা আরও বেশি।

সোমবার হিউম্যান রাইটস ওয়াচ বলেছে - নভেম্বরের ১০ থেকে ১৮ তারিখ পর্যন্ত স্যাটেলাইট চিত্রে দেখা যাচ্ছে যে রোহিঙ্গাদের পাঁচটি গ্রামের ৮২০টি কাঠামো ধ্বংস হয়ে গেছে।

আর রাখাইনে সেনা অভিযানে সব মিলিয়ে ১২৫০টি ভবন ধ্বংস হয়ে গেছে বলে জানাচ্ছে সংস্থাটি।

আরও পড়ুন:

রোহিঙ্গা বিষয়ে মিয়ানমারকে কেন চাপ দেয়া হচ্ছে না

মংডুর গ্রামে পোড়া লাশ ধরে স্বজনের আর্তি

চিঠিপত্র: সম্পাদকের উত্তর