প্রাচীন শহরের খোঁজ মিলেছে মিশরে

প্রাচীন মিশরে গুরুত্বপূর্ণ মানুষদের যারা সামধি তৈরি করতেন, তারা এই শহরে থাকতেন।

ছবির উৎস, মিশরের প্রত্নতত্ত্ব মন্ত্রণালয়

ছবির ক্যাপশান,

প্রাচীন মিশরে গুরুত্বপূর্ণ মানুষদের যারা সামধি তৈরি করতেন, তারা এই শহরে থাকতেন।

মিশরের প্রত্নতত্ত্ববিদরা বলছেন, তারা এমন এক শহর আবিষ্কার করেছেন যেটি ৫০০০ বছরের বেশি প্রাচীন।

এই শহরে বাড়িঘর, মানুষের ব্যবহৃত জিনিসপত্র এবং বহু কবর খুঁজে পেয়েছেন বলে তারা বলছেন।

নীল নদের পাশে মিশরের অ্যাবিডস এলাকায় সেটি দেবীর মন্দিরের কাছাকাছি জায়গায় এই শহরটির অবস্থান বলে প্রত্নতত্ত্ববিদরা দাবি করছেন।

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, গুরুত্বপূর্ণ সরকারি কর্মকর্তা এবং গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিদের সমাধি তৈরি করতেন এমন ব্যক্তিদের কবর রয়েছে এই শহরে।

এর মধ্যে ১৫টি কবর রয়েছে যেগুলো দেখে ধারণা করা যায় যে মৃতদের সামাজিক অবস্থান ঐ শহরের অন্যান্য বাসিন্দাদের চেয়ে বেশি ছিল।

ছবির উৎস, মিশরের প্রত্নতত্ত্ব মন্ত্রণালয়

ছবির ক্যাপশান,

ছবিতে শহর থেকে উদ্ধার করা কিছু তৈজসপত্রের একাংশ

প্রত্নতত্ত্ববিদরা বলছেন, তারা এমন সব প্রমাণ পেয়েছেন যা থেকে তারা ধারণা করতে পারছেন যে প্রাচীন মিশরে গোড়ার দিকে শহরটি জমজমাট হয়ে উঠেছিল।

নতুন এক প্রাচীন শহরে এমন এক সময়ে আবিষ্কৃত হলো যখন মিশর তার পর্যটন খাতকে চাঙ্গা করার চেষ্টা করছে।

২০১১ সালে হোসনি মুবারকের ক্ষমতাচ্যুতির পর থেকে যে সহিংস গোলযোগ শুরু হয়েছে তাতে মিশরের পর্যটনশিল্প দারুণ ক্ষতির মুখে পড়েছে।

ছবির উৎস, গেটি ইমজেস

ছবির ক্যাপশান,

মিশরে রাজনৈতিক গোলযোগের কারণে ক্ষতিগ্রস্ত পর্যটন শিল্প