উত্তর ইউরোপের প্রথম নারী ইমাম মারিয়াম মসজিদের শিরিন খানকান

উত্তর ইউরোপের প্রথম নারী ইমাম মারিয়াম মসজিদের শিরিন খানকান

মারিয়াম মসজিদ কোন সাধারণ মসজিদ নয়। এই মসজিদের ইমাম শিরিন খানকানও কোন সাধারণ ইমাম নন। শিরিন খানকান ডেনমার্কের কোপেনহাগেনের মারিয়াম মসজিদের ইমাম। উত্তর ইউরোপে এটাই প্রথম মসজিদ যেখানে মহিলা ইমাম আছেন।

বিবিসির বিশেষ অনুষ্ঠান ‘শত নারী’ কথা বলেছে শিরিন খানকানের সঙ্গে।

তিনি জানিয়েছেন, মারিয়াম মসজিদ তিনি প্রতিষ্ঠা করেছেন ইউরোপের নতুন প্রজন্মের মুসলিম, যারা মনে করে তাদের কোথাও যাবার জায়গা নেই, তাদের জন্য।

“এর উদ্দেশ্য ইসলামোফোবিয়া আর কট্টর ইসলামের মোকাবেলা। সেই সঙ্গে প্রগতিশীল ইসলামী মূল্যবোধের প্রচার। এজন্য মহিলা মুসলিম নেতৃত্ব খুবই দরকার।”

শিরিন খান আধা সিরিয়ান এবং আধা ফিনিশ বংশোদ্ভূত। তিনি মনে করেন ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানগুলিতে মুসলিম মহিলাদের নেতৃত্ব দেয়ার সময় এসেছে।

“আমার দৃষ্টিতে এটা শুধু লিঙ্গের ব্যাপার নয়, এটা জ্ঞানের ব্যাপার। যার জ্ঞান আছে, সে ইসলামের বার্তা প্রচার করতে পারবে। নবী মুহাম্মদের (তাঁর ওপর শান্তি বর্ষিত হোক) সময় তাঁর বাড়ির নামাজ ঘরে কিন্তু মহিলারা ইমাম হিসেবে কাজ করেছেন।”

“আমরা দেখছি মুসলিম মহিলারা অনেক ক্ষেত্রে নেতৃত্ব দিচ্ছে। চীনে ১৮২০ সাল থেকে মুসলিম মহিলারা ইমাম হিসেবে কাজ করছেন। জনসংখ্যার অর্ধেক অংশই যেখানে মহিলা, সেখানে ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানগুলোতেও তাদের নেতৃত্ব দেয়াটা সময়ের ব্যাপার মাত্র।”