জর্জিয়ায় সরকারি খরচে কর্মকর্তাদের আদব কায়দা শিক্ষা

তিবলিসি

ছবির উৎস, ALAMY/JUERGEN RITTERBACH

ছবির ক্যাপশান,

তিবলিসির মেয়র অফিস

জর্জিয়ার রাজধানী তিবলিসির নগর সরকারের কর্মকর্তাদের সরকারি খরচে আদব কায়দা শেখানোর পরিকল্পনা করা হয়েছে। তবে তা নিয়ে শুরু হয়েছে তুমুল সমালোচনা।

তিবলিসির মেয়রের অফিস থেকে ঘোষণা করা হয়েছে, নগর সরকারের ৩৮ জন কর্মকর্তাকে আদব-কায়দা শিষ্টাচার শিক্ষা দেওয়া হবে।

তার জন্য একটি প্রশিক্ষক নিয়োগের জন্য টেন্ডার আহ্বান করা হয়েছে।

মেয়র অফিসের কর্মকর্তা নাটিয়া লাটারিয়া জর্জিয়ার রুস্তাভি টিভি চ্যানেলকে বলেছেন, কর্মচারীদের ওপর চালানো একটি জরীপের পর এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

তিনি বলেন, সরকারি বিভিন্ন অনুষ্ঠানে পোশাক নির্বাচন এবং খাবার টেবিলের আদব-কায়দা কর্মকর্তাদের জন্য অত্যন্ত জরুরী। আর সে কারণেই এই উদ্যোগ।

তবে এই খবর প্রচারের সাথে সাথে সমালোচনা ঝড় উঠেছে।

নগর সরকারে বিরোধী দল ইউনাইটেড ন্যাশনাল মুভমেন্টের কাউন্সিলর ইরাকি নাদিরাদজে বলেন, এভাবে টাকা নষ্ট করার এই পাঁয়তারার পেছনে যারা রয়েছেন তাদের জবাবদিহি করতে হবে।

জর্জিয়ায় সোশ্যাল মিডিয়াতেও এ নিয়ে ঝড় বইছে।

ফেসবুকে একজন লিখেছেন,"কর্মকর্তারা উন্মাদ হয়ে গেছেন। মানুষ না খেয়ে মারা যাচ্ছে আর তারা খাবার টেবিলের আদব কায়দা নিয়ে চিন্তিত।"

আরেকজন লিখেছেন, "যারা ভদ্রতা শেখেনি, তারা কিভাবে নগর সরকারের কর্মকর্তা হয়?"

দেখেশুনে তিবলিসির মেয়র ডাভিট নারমানিয়া এই বিতর্ক থেকে দুরে রাখছেন। তিনি তার কর্মকর্তাদের বলেছেন, ভবিষ্যতে প্রশিক্ষণ যেন আরো গুরুত্বপূর্ণ ইস্যুতে হয়।