পুলিশ, র‍্যাবকে নিয়ম ভেঙ্গে স্পন্সর করেছে গ্রামীনফোন: টেলিনর

গ্রামীনফোন বাংলাদেশের অন্যতম টেলিকম সেবা দাতা প্রতিষ্ঠান ছবির কপিরাইট GP
Image caption গ্রামীনফোন বাংলাদেশের অন্যতম টেলিকম সেবা দাতা প্রতিষ্ঠান

বাংলাদেশে পুলিশ, র‍্যাব ও নিরাপত্তা বাহিনীসহ বিভিন্ন সংস্থা ও প্রতিষ্ঠানকে দেয়া ১১টি স্পন্সরশীপের ক্ষেত্রে অভ্যন্তরীণ নীতিমালা গ্রামীনফোন মেনে চলেনি বলে জানাচ্ছে টেলিনর।

মঙ্গলবার গ্রামীনফোনের মূল কোম্পানি নরওয়ের টেলিনর এক সংবাদ বিবৃতিতে এ কথা জানিয়েছে।

গত এক বছরে গ্রামীনফোন বাংলাদেশের আড়াইশো সংস্থা ও প্রতিষ্ঠানকে স্পন্সর করেছে।

এর মধ্যে কোন প্রতিষ্ঠানকে স্পন্সরশীপ দেয়ার জন্য নিজেদের প্রতিষ্ঠানের যে অভ্যন্তরীণ নির্দেশনা রয়েছে, তা গ্রামীনফোন মেনে চলেনি বলে জানাচ্ছে টেলিনর।

অনিয়মের ঘটনাগুলোর একটি ঘটেছে বাংলাদেশ পুলিশকে দেয়া স্পন্সরশীপের ক্ষেত্রে।

বাংলাদেশ পুলিশের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী, পুলিশ ক‌্যান্টিন সংস্কার এবং পুলিশের একটি টেলিফোন নির্দেশিকা প্রকাশে প্রতিষ্ঠানের অভ্যন্তরীণ নীতিমালা না মেনেই অর্থ সহায়তা দেয়া হয়েছে।

এছাড়া গ্রামীনফোন নিয়ম ভেঙ্গে দুইজন বাংলাদেশী সাংবাদিকের পশ্চিম আফ্রিকা ও শ্রীলঙ্কা-ভারত সফরের ভ্রমণ ব‌্যয় বহন করেছে বলেও অডিটে দেখা গেছে বলে জানানো হয়েছে।

এর আগে টেলিনরের সর্বশেষ অভ্যন্তরীণ অডিট রিপোর্টে উঠে আসা বিভিন্ন তথ্য নিয়ে নরওয়ের সংবাদমাধ্যমে কয়েকদিন ধরে আলোচনা চলছিল।

সেই প্রেক্ষাপটে বিবৃতি ইস্যু করে টেলিনর।

বিবৃতিতে বলা হয়েছে, অভ্যন্তরীণ নীতিমালা ভাঙ্গার বিষয়টি কোনভাবেই গ্রহণযোগ্য নয়। এজন্য এধরণের পদক্ষেপ বন্ধে উদ্যোগ নেয়া হয়েছে।

বিবৃতিতে আরো বলা হয়েছে, স্পন্সরশীপ নিয়ে ২০১৩ সালে প্রথম টেলিনর নিজেদের অডিট রিপোর্ট প্রকাশ করেছিল।

এরপর প্রতিষ্ঠানটি স্পন্সরশীপ নীতিমালা তৈরি করেছিল।

এছাড়া বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে হওয়া চুক্তি সমূহ অনুমোদনের জন্য একটি স্পন্সরশীপ কমিটিও গঠন করা হয়েছিল।

চিঠিপত্র: সম্পাদকের উত্তর