বিদ্রোহীদের সরিয়ে নিতে বাস ঢুকেছে আলেপ্পোয়

সিরিয়া
ছবির ক্যাপশান,

আলেপ্পো শহরে ঢুকছে বাসের বহর

সিরিয়ার আলেপ্পো শহর থেকে প্রেসিডেন্ট আসাদ-বিরোধী বিদ্রোহী যোদ্ধা এবং বেসামরিক লোকদের বের করে নিয়ে যাবার কাজ আজ আর কিছু পরই শুরু হবে।

প্রচড ঠান্ডা এবং বিপজ্জনক পরিস্থিতির মধ্যে সারা রাত ধরে অপেক্ষায় থাকা এই কয়েক হাজার লোককে বের করে নিয়ে যাবার জন্য অনেকগুলো বাসের বহর পূর্ব আলেপ্পোতে ঢুকেছে।

এই সঙ্গে বিদ্রোহীদের দখলে থাকা দুটি গ্রাম থেকে প্রায় ১,২০০ সরকারসমর্থক লোককে বের করে নিয়ে যাবার কাজও একই সাথে চলবে।

তবে এ দুটি গ্রামের মানুষজনকে সরিয়ে নিতে সমস্যা হচ্ছে বলে জানা যাচ্ছে।

কারণ নুসরা ফ্রন্ট নামের জিহাদি গোষ্ঠী ফুয়া এবং কেফ্রায়া নামের এই দুটি গ্রামের ভেতর ত্রাণকর্মীদের বাস ঢুকতে দিচ্ছে না

ছবির ক্যাপশান,

প্রচন্ড ঠান্ডার মধ্যে উদ্ধারের জন্য দীর্ঘ অপেক্ষায় রয়েছে নারী ও শিশুসহ হাজার হাজার লোক

সংবাদদাতারা বলছেন, হাজার হাজার মানুষ এখন পূর্ব আলেপ্পোতে আটকা পড়ে আছে। প্রচণ্ড ঠাণ্ডায় তারা শুয়ে আছে রাস্তায়। খাবার দাবারও খুব একটা নেই।

বলা হচ্ছে, ইদলিব নামে আরেকটি শহরে সরকারনিয়ন্ত্রিত এলাকায় লোকজনকে সরিয়ে নেওয়ার বিষয়েই বিদ্রোহীদের আপত্তি।

একারণে শুক্রবার থেকেই এই সরিয়ে নেওয়ার কাজ বন্ধ রয়েছে।

তবে এখন বলা হচ্ছে, বিদ্রোহীদের সাথে নতুন করে সমঝোতা হয়েছে এবং খুব শীঘ্রই তাদেরকে সরিয়ে নেওয়ার কাজ আবার শুরু হবে।

এই কাজ তদারকি করতে পূর্ব আলেপ্পোতে জাতিসংঘের তরফে পর্যবেক্ষক পাঠানোর প্রস্তাব করেছে ফ্রান্স। এবিষয়ে আজই আরো পরের দিকে জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদে ভোট হওয়ার কথা রয়েছে।