ইস্তাম্বুল নাইটক্লাবের হামলাকারীকে খুঁজছে তুর্কী পুলিশ

হামলার শিকার ব্যক্তিদের নিরাপদ জায়গায় সরিয়ে নেয়া হচ্ছে।
ছবির ক্যাপশান,

হামলার শিকার ব্যক্তিদের নিরাপদ জায়গায় সরিয়ে নেয়া হচ্ছে।

তুরস্কের ইস্তুাম্বুল শহরে যে বন্দুকধারী নতুন বছরের রাতে একটি নাইটক্লাবে আনন্দ-উল্লাস করতে আসা লোকের ওপর আক্রমণ চালিয়েছে, পুলিশ এখন তার খোঁজ করছে।

তুর্কী স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সুলেমান সয়লু বলছেন, ঐ আক্রমণে ৩৯ ব্যক্তি নিহত হন, যার মধ্যে অন্তত ১৫ জন বিদেশি নাগরিক।

হামলায় আহত আরও অন্তত ৭০জনকে হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে।

এই হামলার সাথে দুজন জড়িত ছিল বলে এর আগে যে খবর বেরিয়েছে মি. সয়লু তাকে নাকচ করেন।

তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রেচেপ তাইপ এরদোয়ান বলছেন, তার দেশের স্থিতিশীলতা বিনষ্ট করতেই এই হামলা চালানো হয়েছে।

সারা বিশ্বের বিভিন্ন নেতা এই আক্রমণের তীব্র নিন্দা করেছেন - যার মধ্যে রয়েছেন রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনও।

তিনি তার প্রতিক্রিয়ায় অঙ্গীকার করেন যে সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে যুদ্ধে মস্কো একজন বিশ্বস্ত সাথী হিসেবে তুরস্কের পাশে থাকবে।

যেভাবে ঘটলো নববর্ষের হামলা

ছবির ক্যাপশান,

ইস্তানবুলের রেইনা নাইটক্লাবের সামনে অ্যাম্বুলেস

রোববার স্থানীয় সময় রাত দেড়টার দিকে ইস্তাম্বুলের অর্তাকয় এলাকায় রেইনা নাইট ক্লাবে এই হামলার ঘটনা ঘটে।

ইস্তাম্বুলের গভর্নর জানিয়েছেন, স্যান্টক্লসের পোশাক পরা বন্দুকধারী নাইট ক্লাবের ভেতরে ঢুকেই গুলি চালাতে শুরু করে।

আক্রমণের সময় ক্লাবে প্রায় ৭০০ মানুষ ছিল। তারা নববর্ষ উদযাপন করছিল।

হামলার পর অনেকেই ভয় আর আতঙ্কে নদীতে ঝাঁপিয়ে পড়ে।

দোগান নিউজ এজেন্সি প্রত্যক্ষদর্শীদের উদ্ধৃত করে বলেছেন হামলাকারিরা আরবী ভাষায় কথা বলছিলো।