জামিন পেলেন ব্রাহ্মণবাড়িয়ার রসরাজ দাস

পোড়া বাড়ি
Image caption নাসিরনগরে হিন্দুদের মন্দির এবং বাড়িঘরে হামলা চালানো হয় (ফাইল ছবি)

বাংলাদেশের ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলায় ফেসবুকে মুসলমানদের পবিত্র কাবা শরীফকে ব্যঙ্গ করে ফেসবুকে পোস্ট দেবার ঘটনায় মূল অভিযুক্ত রসরাজ দাসের জামিন মঞ্জুর করেছে আদালত।

সোমবার সকালে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার জেলা ও দায়রা জজ আদালত রসরাজ দাসের জামিন মঞ্জুর করে।

রসরাজ দাসের আইনজীবী নাসির মিয়া বিবিসি বাংলাকে জানিয়েছেন, পুলিশের তদন্ত প্রতিবেদন আদালতে দাখিল না করা পর্যন্ত অন্তর্বর্তী জামিন মঞ্জুর করা হয়েছে।

অক্টোবর মাসের শেষের দিকে কাবা ঘরকে অবমাননা করে একটি ছবি ফেসবুকে পোস্ট করার পর ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নাসিরনগরে শতাধিক হিন্দুবাড়ি ও মন্দিরে ভাংচুর করা হয়। অভিযোগ উঠেছিল ফেসবুকে রসরাজ দাসের অ্যাকাউন্ট থেকে সে ছবি পোস্ট করা হয়েছিল।

এরপর ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নাসিরনগর থানায় পুলিশ বাদী হয়ে তথ্য-প্রযুক্তি আইনে মামলা করেছিল।

Image caption ফেসবুকের ছবিকে কেন্দ্র করে হিন্দুদের মন্দিরে হামলা চালানো হয় (ফাইল ছবি)

রসরাজ দাসের আইনজীবী জানিয়েছেন, মামলার সংশ্লিষ্ট কাগজপত্র পরীক্ষা করে আদালত জামিন মঞ্জুর করেছে।

এ মামলায় রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী বা পাবলিক প্রসিকিউটর জামিনের কোন বিরোধিতা করেননি।

পাবলিক প্রসিকিউটর এ এম ইউসুফ বিবিসি বাংলাকে জানিয়েছেন, এ মামলায় এখন পর্যন্ত যেসব কাগজপত্র দেখা গেছে তাতে ফেসবুকে সে ছবি পোস্ট করার সাথে রসরাজ দাসের কোন সম্পৃক্ততার প্রমাণ এখনও পাওয়া যায়নি।

রসরাজ দাসের আইনজীবী আশা করছেন, সোমবার বিকেল নাগাদ তিনি কারাগার থেকে মুক্তি পেতে পারেন।

নারায়ণগঞ্জের সাত খুন মামলায় ২৬ জনের মৃত্যুদণ্ড

যেভাবে দেয়া হলো সাত খুন মামলার রায়

সম্পর্কিত বিষয়

চিঠিপত্র: সম্পাদকের উত্তর