কিরগিজিস্তানের গ্রামে বিমান বিধ্বস্ত হয়ে ৩২ জন নিহত

বিমান বিধ্বস্ত
ছবির ক্যাপশান,

অন্তত ১৫ টি বাড়ি ধ্বংস হয়ে গেছে

হংকং থেকে উড়ে আসা টার্কিশ এয়ারলাইন্সের একটি কার্গো বিমান কিরগিজিস্তানে বিধ্বস্ত হয়ে ৩২ জন নিহত হয়েছে। নিহতদের অধিকাংশই মাটিতে অবস্থান করছিল।

ঘন কুয়াশার মাঝে মানাস বিমানবন্দরে অবতরণের সময় বোয়িং ৭৪৭ টিসি-এমসিএল উড়োজাহাজটি বিধ্বস্ত হয়। বিমানবন্দরটি কিরগিজিস্তানের রাজধানী বিশকেক থেকে প্রায় ২৫ কিলোমিটার দুরে অবস্থিত।

বিমানবন্দরের বাইরে প্রায় ১৫ টি ভবন ধসে গেছে এবং নিহতদের মধ্যে বেশ কিছু শিশুও আছে বলে খবর পাওয়া যাচ্ছে।

ফ্লাইট টিকে৬৪৯১ তুরস্কের ইস্তাম্বুল যাবার পথে মানাস বিমানবন্দরে থামার কথা ছিল।

ছবির ক্যাপশান,

বিধ্বস হওয়ার কারণ এখনো স্পষ্ট নয়

ছবির ক্যাপশান,

ঘন কুয়াশার কারণে স্পষ্ট দেখা যাচ্ছিল না

ছবির ক্যাপশান,

কর্মকর্তারা বলছেন, নিহতের সংখ্যা বাড়তে পারে

তুর্কি কার্গো ক্যারিয়ার এসিটি-র মালিকানাধীন ছিল উড়োজাহাজটি

'অনেকেই ঘুমাচ্ছিল'

স্থানীয় সময় সকাল সাড়ে সাতটায় দাকা-সু গ্রামে বিমানটি বিধ্বস্ত হয়। গ্রামটি স্থানীয়ভাবে একটি জনপ্রিয় অবকাশযাপন কেন্দ্র।

ঘন কুয়াশার কারণে তখন খুব বেশিদূর দেখাও যাচ্ছিল না। যদিও বিমান বিধ্বস্ত হওয়ার কোন কারণ এখনো নিশ্চিত হয়নি।

উড়োজাহাজটি প্রায় ১৪ বছরের পুরনো বলে জানা গেছে।

একজন প্রত্যক্ষদর্শী সংবাদ সংস্থা এএফপিকে বলেছেন, "বিমানটি সরাসরি বাড়িঘরের ওপর বিধ্বস্ত হয়। অনেকের পুরো পরিবার নিহত হয়েছে। বাড়িঘরের কোনকিছুই এখন আর অবশিষ্ট নেই। অনেক মানুষ তখন ঘুমের মধ্যে ছিল"।

আরও পড়ুন: