ওবামার যে টুইট ইতিহাসের সর্বোচ্চ 'লাইক' পেল

ম্যারিল্যান্ডের একটি দিবাযত্ন কেন্দ্রের কয়েকটি শিশু। ছবির কপিরাইট Getty Images
Image caption এই ছবিতে দেখা যাচ্ছে ম্যারিল্যান্ডের একটি দিবাযত্ন কেন্দ্রের কয়েকটি শিশুকে।

একটা ছবি, ছবিতে একটি জানালা দিয়ে কয়েকটি শিশুকে দেখছেন সাবেক প্রেসিডেন্ট ওবামা। শিশুগুলো একসাথে আছে কিন্তু তাদের গাত্রবর্ণ পৃথক।

ছবিটির ক্যাপশনে লেখা নেলসন ম্যান্ডেলার উক্তি, "কোন শিশুই অন্য কারো বর্ণ, ধর্ম কিংবা অতীতকে ঘিরে ঘৃণা নিয়ে জন্মায় না"।

ভার্জিনিয়ার শার্লোটসভিলে হামলার পর গত ১৩ই অগাস্ট বারাক ওবামার পোস্ট করা এই টুইটটিতে এখন পর্যন্ত লাইকের সংখ্যা ত্রিশ লাখ ছাড়িয়ে গেছে।

বলা হচ্ছে মাইক্রোব্লগিং সাইট টুইটারের ইতিহাসে এত লাইক এর আগে আর কোন টুইটই পায়নি।

বিবিসিকে টুইটারের তরফ থেকে জানানো হয়েছে, মাইলফলকটি অর্জিত হয় আজ (বুধবার) বাংলাদেশ সময় আনুমানিক ভোর সাতটার দিকে।

এর আগে সর্বোচ্চ লাইক পাওয়া টুইটটি পোস্ট করেছিলেন আরিয়ানা গ্রান্ডে, বিষয় ছিল ম্যাঞ্চেস্টারের সন্ত্রাসী হামলা।

বারাক ওবামার সর্বোচ্চ লাইক পাওয়া টুইটটি ছিল মূলত একটি ধারাবাহিক টুইটের প্রথমটি।

এরপর একই বিষয়ে আরো দুটি টুইট করেছেন প্রেসিডেন্ট ওবামা।

তিনটি টুইটই মূলত নেলসন ম্যান্ডেলার আত্মজীবনী 'লং ওয়াক টু ফ্রিডম' এর একটি অনুচ্ছেদের থেকে নেয়া।

দ্বিতীয় টুইটটি ছিল, "মানুষকে অবশ্য ঘৃণা করতে শিখতে হয়। তাদেরকে ভালবাসতেও শেখানো যায়।"

তৃতীয়টি, "মনুষ্য হৃদয়ে ঘৃণার চাইতে ভালবাসাটাই বেশী প্রাকৃতিকভাবে আসে।"

প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পই টুইটারের একজন ভক্ত এবং নিয়মিত ব্যবহারকারী, এমনটিই জানেন সবাই। টুইটারকে রীতিমত প্রচারণার হাতিয়ার হিসেবে ব্যবহার করেন তিনি।

কিন্তু এখন দেখা যাচ্ছে, টুইটের সংখ্যার বিচারে না হলেও জনপ্রিয়তার বিচারে টুইটারে মি. ওবামার থেকে বিস্তর পিছিয়ে আছেন মি. ট্রাম্প।

টুইটারে মি. ট্রাম্পের অনুসারীও বারাক ওবামার চাইতে অনেক কম।

বারাক ওবামাকে অনুসরণ করেন ৯ কোটি ৩৩ লাখ মানুষ। আর ডোনাল্ড ট্রাম্পের অনুসারী মোটে ৩ কোটি ৬০ লাখ।

যদিও বারাক ওবামার চাইতে দ্বিগুণেরও বেশী টুইট করেছেন মি. ট্রাম্প।

আরো পড়ুন:

'শেকড়ের সন্ধানে গিয়েছিলাম পশ্চিমবঙ্গে'

সৌদি যুবরাজদের কারা অপহরণ করল এবং কেন?

যেভাবে পিতার হত্যাকাণ্ড সম্পর্কে জেনেছিলেন হাসিনা

বিটিআরসি কেন মোবাইলের কলরেট বাড়াতে চায়?