বিপর্যস্ত রোহিঙ্গারা এবার আক্রান্ত হচ্ছে রোগব্যাধিতে, স্বাস্থ্যসেবা পাচ্ছে কি?

ছবির কপিরাইট Reuters
Image caption এভাবেই দলে দলে রোহিঙ্গারা বাংলাদেশে এসে আশ্রয় নিয়েছে

বাংলাদেশে পালিয়ে আসা রোহিঙ্গারা ডাইরিয়ায় আক্রান্ত হচ্ছেন বলে জানা যাচ্ছে। শিশুদের চর্মরোগ ও নিউমোনিয়া হওয়ার খবর পাওয়া যাচ্ছে।

মিয়ানমারে সাম্প্রতিক সহিংসতা শুরু হওয়ার পর বাংলাদেশে চার লাখের বেশি রোহিঙ্গা শরণার্থী প্রবেশ করেছে বলছে জাতিসংঘ। এখনো সীমান্তে আসছে অনেক রোহিঙ্গা। টেকনাফ ও উখিয়ার রাস্তাঘাট সহ বিভিন্ন এলাকায় তারা অবস্থান করছেন।

রোহিঙ্গা শরণার্থীদের স্বাস্থ্যসেবার বিষয়ে জানতে চাইলে সহকারী সিভিল সার্জন ডা. মহিউদ্দিন মোহাম্মদ আলমগীর বিবিসিকে বলেন শুরুতে প্রস্তুতি কম থাকলেও শেষ পর্যন্ত তারা যথাযথ ব্যবস্থা নিতে পেরেছেন।

তিনি বলেন, "এটা সত্যি যে শুরুতে আমাদেরও প্রস্তুতি ছিলোনা। কিন্তু ব্যাপক শরণার্থী আসার পরপরই আমরা একটা পর্যালোচনা করি এবং কিছু প্রতিরোধমূলক ব্যবস্থা নিতে শুরু করি"।

তিনি বলেন বিশেষ করে পর্যাপ্ত বিশুদ্ধ পানি, স্বাস্থ্যসম্মত সেনেটারির মতো ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। এজন্য উখিয়া ও টেকনাফে কিছু মেডিকেল টীমও গঠন করে দেয়া হয়েছে আন্তর্জাতিক সংস্থাগুলোর সমন্বয়ে।

সিভিল সার্জন অফিসের তথ্য অনুযায়ী এ পর্যন্ত প্রায় ৫ লাখ পানি বিশুদ্ধকরণ ট্যাবলেট বিতরণ করা হয়েছে এবং এর প্রতিটি দিয়ে ২০ লিটার পানি বিশুদ্ধ করা সম্ভব।

ছবির কপিরাইট VARUN NAYAR/BBC
Image caption শরনার্থীর কান্না

ডায়রিয়া প্রতিরোধে ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। ১ লাখ ১৩ হাজার শিশুকে ভ্যাকসিন দেয়ার লক্ষ্য ঠিক করা হয়েছে বলেন জানান সহকারী সিভিল সার্জন।

তিনি জানান মূলত ডায়রিয়া, চর্মরোগ, নিউমোনিয়া আর চোখের প্রদাহতে ভুগছেন অনেক রোহিঙ্গা। সাথে রয়েছে গুলিতে আহতরা।

বাংলাদেশে এসে স্বাস্থ্যসেবা পেয়েছে প্রায় এক হাজার প্রসূতি রোহিঙ্গা নারী।

ডা. মহিউদ্দিন মোহাম্মদ আলমগীর পর্যাপ্ত ঔষধ চলে এসেছে সরকারের তরফ থেকে।

কুতুপালংয়ে স্যাটেলাইট ক্লিনিকে অনেক রোহিঙ্গাকে চিকিৎসা দেয়া হয়েছে আর এ মূহুর্তে সদর হাসপাতালেও সাতশর মতো রোহিঙ্গা রোগী ভর্তি আছে বলে জানান তিনি।

আরও পড়ুন 'সু চি-র ভাষণে সেনাবাহিনীর বক্তব্যেরই প্রতিধ্বনি'

বর্মী সেনাদের প্রশিক্ষণ স্থগিত করেছে ব্রিটেন

বর্মী সেনাদের প্রশিক্ষণ স্থগিত করেছে ব্রিটেন