এ সপ্তাহের সাক্ষাতকার: নাসরীন সুলতানা
আপনার ডিভাইস মিডিয়া প্লেব্যাক সমর্থন করে না

এ সপ্তাহের সাক্ষাতকার: নাসরীন সুলতানা

নাসরীন সুলতানা বাংলাদেশ ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের প্রথম নারী দমকল ও উদ্ধার কর্মী।

এখন ঢাকার লালবাগের ফায়ার স্টেশনের ইনচার্জ।

১৯৮৪ সালে প্রথম ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সে যোগ দেন। পত্রিকার একটি বিজ্ঞাপন দেখিয়ে তাকে উৎসাহ দিয়েছিলেন বড় বোন।

তবে শুরুতে অনেকদিন টেলিফোন অপারেটর হিসেবে ফায়ার সার্ভিসের কন্ট্রোল রুমে কাজ করেছেন।

এর পর পদোন্নতি হয়েছে স্টেশন অফিসার হিসেবে। এক পর্যায়ে লালবাগের স্টেশন ম্যানেজার হিসেবে নিয়োগ পান।

ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সে তার আগে কিছু নারীরা প্রশাসনিক কাজে নিয়োজিত ছিলেন কিন্তু সরাসরি অগ্নি নির্বাপণ, উদ্ধারকাজ এবং এমন কাজে নির্দেশনা দেয়ার ক্ষেত্রে তিনিই প্রথম নারী।

তিনি বলছিলেন প্রথম যেদিন এমন কাজে যেতে হয়েছিলো সেটি ছিল একটি অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা।

সেদিন ভয়ে সুরা পরছিলেন। তবে সাহস হারান নি।

একটি স্মরণীয় অভিজ্ঞতা বর্ণনা করতে গিয়ে তিনি বলছিলেন, "মোহাম্মদপুরে বৌ বাজারে একটি অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় রাত দুটায় গিয়েছিলাম। আমাদের পোশাক পরার পর আসলে বোঝা যায়না পুরুষ না মহিলা। সেখানে পৌঁছানোর পর কয়েকজন এসে আমার হাত ধরে বলেছিল আমার ঘরটা বাঁচান। যখন বুঝতে পারলো আমি মহিলা তখন মনে হল ওনারা বিদ্যুতের শক খেলো"

নাসরীন সুলতানা তার সাহসী ভূমিকার জন্য ২০১৫ সালে ফায়ার সার্ভিস সিভিল ডিফেন্স প্রেসিডেন্টস পদক পেয়েছেন।

তার এলাকায় বহু ভলান্টিয়ারদের প্রশিক্ষণ দিচ্ছেন।

উদ্ধার কর্মী হিসেবে তাকে দেখলে এখনো অনেকেই অবাক হন।

ছবির কপিরাইট Fire Service
Image caption নাসরীন সুলতানাকে পদক পরিয়ে দিচ্ছেন বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

সম্পর্কিত বিষয়