অভিজিৎ রায় হত্যায় জড়িত সন্দেহে একজন গ্রেফতার

ছবির কপিরাইট .
Image caption অভিজিৎ রায়

বাংলাদেশের পুলিশ বলছে তারা ব্লগার অভিজিৎ রায় হত্যাকান্ডের সাথে জড়িত থাকার সন্দেহে একজন সন্দেহভাজন ইসলামী জঙ্গীকে গ্রেফতার করেছে।

পুলিশের সন্ত্রাস দমন ইউনিটের কর্মকর্তারা বলছেন, গ্রেফতারকৃত ব্যক্তির নাম আবু সিদ্দিক সোহেল এবং সে আনসারউল্লাহ বাংলা টিম নামে একটি সংগঠনের গোয়েন্দা শাখার সদস্য।

ঢাকার মোহাম্মদপুর এলাকার ইকবাল রোডে এক অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেফতার করা হয়। পুলিশ বলছে, হত্যাকান্ডের ঘটনার সিসিটিভ ফুটেজ পরীক্ষা করে সন্দেহভাজনদের চিহ্নিত করা হয়।

বাংলাদেশ ও যুক্তরাষ্ট্রের দ্বৈত নাগরিক অভিজিৎ রায় নিহত হন ২০১৫ সালে ঢাকার বাংলা একাডেমি বই মেলার বাইরে। মেলা থেকে বেরোবার পর ধারালো অস্ত্রধারী একদল লোক তাকে আক্রমণ করে কুপিয়ে হত্যা করে।

ছবির কপিরাইট ঢাকা মেট্রোপলিটান পুলিশ
Image caption ঘটনার সিসিটিভি ফুটেজে দেখা যায় অভিজিৎ ও রাফিদার পেছনে এক ব্যক্তি হাঁটছে

হত্যাকাণ্ডের সময় তাঁর স্ত্রী রাফিদা আহমেদও আহত হন।

ওই হত্যাকান্ডে জড়িত থাকার দয়ে আরো ১০ জনকে পুলিশ গ্রেফতার করেছে। এ ছাড়া ঘটনার প্রধান সন্দেহভাজন বলে কথিত এক ব্যক্তি গত বছর ঢাকায় 'পুলিশের সাথে বন্দুকযুদ্ধে' নিহত হয় - এ কথাও বলছেন পুলিশের কর্মকর্তারা।

অভিজিৎ রায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক অধ্যাপক অজয় রায়ের ছেলে।

গত কয়েক বছরে বাংলাদেশে বেশ কয়েকজন ধর্মনিরপেক্ষ বা নাস্তিক ব্লগার, লেখক, বিদেশী নাগরিক এবং ধর্মীয় সংখ্যালঘু সন্দেহভাজন জঙ্গীদের হাতে নিহত হয়েছেন।

পুলিশ কর্মকর্তারা বলছেন, ২০১২ সালের এক ব্যর্থ অভ্যুত্থান প্রচেষ্টার কথিত পরিকল্পনাকারী মেজর জিয়াও এই আনসারুল্লাহ বাংলা টিমের সাথে জড়িত।

সম্পর্কিত বিষয়