নিখোঁজ মুবাশ্বারের খোঁজে তদন্ত করছে পুলিশ

নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাজবিজ্ঞান অনুষদের সহকারী অধ্যাপক মুবাশ্বার হাসান সিজার ছবির কপিরাইট মুবাশ্বার হাসান সিজারের ফেসবুক পাতা থেকে নেয়া
Image caption নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাজবিজ্ঞান অনুষদের সহকারী অধ্যাপক মুবাশ্বার হাসান সিজার

বাংলাদেশের বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাজবিজ্ঞান অনুষদের সহকারী অধ্যাপক মুবাশ্বার হাসান সিজারকে গতকাল মঙ্গলবার বিকেল থেকে খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না।

খিলগাঁও থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেছেন তাঁর বাবা মোতাহার হোসেন।

খিলগাঁও থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মশিউর রহমান বলছিলেন গতকাল রাত ১টার দিকে মি. সিজারের বাবা মোতাহার হোসেন এসে জিডি করেন।

জিডি নম্বর ৪৭১। পুলিশ কর্মকর্তা মি. রহমান বলছিলেন তাঁর বাবা পুলিশকে জানিয়েছে, মঙ্গলবার সকাল সাতটায় মি. সিজার তাঁর কর্মস্থল নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের উদ্দেশ্যে যান।

সেখানে ক্লাস শেষ করে দুপুরে আইডিবি ভবনে একটা মিটিং ছিল বলে জানা গেছে।

মি. সিজারের বাবা পুলিশকে জানিয়েছেন গতকাল দুপুর তিনটায় একবার এবং ৪টায় আরেকবার ফোন করেন তিনি।

এরপর থেকেই তাঁর ফোনটি বন্ধ পাওয়া যাচ্ছে। মোতাহার হোসেন বিবিসি বাংলাকে বলেন, তাঁরা নিজেরাও ধারণা করতে পারছেন না বিষয়টা কী হচ্ছে। এর বেশি কিছু তিনি বলেন নি।

পুলিশ বলছে জিডি করার পর আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর পক্ষ থেকে তদন্ত করা হচ্ছে।

এদিকে,মুবাশ্বার হাসানের ফেসবুক পাতায় ৩১শে অক্টোবর এক পোস্টে দেখা যাচ্ছে তিনি লিখেছেন এক,দুই বছর ধরে তিনি বেনামী ফেসবুক ব্যবহারকারীদের কাছ থেকে বিরক্তিকর বার্তা পেয়ে আসছেন।

আরো পড়ুন:

বন্দীদশা থেকে যেভাবে ক্ষমতার কেন্দ্রে এলেন জিয়া

খিচুড়ির বিশ্বরেকর্ডকে চ্যালেঞ্জ আজমের শরিফ দরগার

সম্পর্কিত বিষয়