রাশিয়া বিশ্বকাপ থেকে ইতালির বিদায়, বুফনের পদত্যাগ

বিশ্বকাপের বাছাই-পর্ব থেকে ইতালির বিদায় ছবির কপিরাইট Getty Images
Image caption ১৯৯৭ সালে রাশিয়ার বিপক্ষে খেলায় আন্তর্জাতিক ডেব্যু হয় বুফনের।

চারবারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন ইতালি ৬০ বছরের মধ্যে এই প্রথম ফুটবল বিশ্বকাপের বাছাইপর্ব থেকে বাদ পড়ে গেল।

সোমবার রাতে প্লে অফের ম্যাচে সুইডেনের বিপক্ষে খেলায় গোলশূন্য ড্র করার পর আসন্ন ২০১৮ বিশ্বকাপ থেকে ছিটকে পড়লো তারা।

আর বিশ্বকাপের বাছাইপর্ব থেকে বাদ পড়ার পর আন্তর্জাতিক ফুটবল থেকে অবসরের ঘোষণা দেন ইতালি অধিনায়ক জিয়ানলুইজি বুফন।

১৯৫৮ সালের পর এই প্রথমবারের মতো বিশ্বকাপে খেলতে পারছে না ইতালি।

অন্যদিকে সুইডেন প্রথম লেগের খেলায় এক শূন্য গোলের ব্যবধানে জয় পাওয়ার কারণে রাশিয়া বিশ্বকাপে খেলা নিশ্চিত হল তাদের।

ম্যাচ শেষে ৩৯ বছর বয়সী বুফন বলেন, "এটা লজ্জাজনক যে আমার শেষ ম্যাচ বিশ্বকাপ বাছাইয়ের ব্যর্থতার মধ্যে দিয়ে শেষ হলো। এই ব্যর্থতার দায় সবারই সমানভাবে নিতে হবে।"

২০ বছরের আন্তর্জাতিক ক্যারিয়ারে ইতালির হয়ে ১৭৫টি ম্যাচ খেলেছেন গোলরক্ষক বুফন। ২০০৬ বিশ্বকাপজয়ী দলের এই সদস্য মনে করেন চারবারের বিশ্বচ্যাম্পিয়নদের ফুটবলের ভবিষ্যত সম্ভাবনাময়।

"ইতালির ফুটবলের ভবিষ্যত সম্ভাবনাময়। বিপর্যয়ের পর আমরা সবসময় লড়াই করে ফিরে এসেছি " বলেন বুফন।

বুফনের ইউভেন্টাস সতীর্থ আন্দ্রেয়া বারজাগলি আর রোমা মিডফিল্ডার ড্যানিয়েলে ডে রসিও অবসরের ঘোষণা দিয়েছেন। একইরকম সিদ্ধান্ত নিতে পারেন ডিফেন্ডার জর্জিও কিয়েলিনিও।

আরো পড়তে পারেন:

রোহিঙ্গা নির্যাতন: মিয়ানমার সেনাবাহিনীর সাফাই

প্রধান বিচারপতির পদত্যাগপত্র কার্যকর হয়েছে

সুইডেনের কাছে পরাজয়ের পর ইতালির ম্যানেজার জিয়ামপিয়েরো ভেঞ্চুরা জাতীয় কোনো টেলিভিশনে সাক্ষাৎকার দেননি।

তবে ম্যাচ শেষে প্রায় দেড় ঘন্টা পর এক সংবাদ সম্মেলেন ৬৯ বছর বয়সী ম্যানেজার মি: ভেঞ্চুরা বলেছেন, "আমি এখনও পদত্যাগ করিনি কারণ এখনও প্রেসিডেন্টের সাথে আমার কথা হয়নি।"

গত বছরের জুন মাসে ইতালির ম্যানেজারের দায়িত্ব নেয়া ভেঞ্চুরা ২০২০ সাল পর্যন্ত দলের সাথে চুক্তিবদ্ধ।

বিশ্বকাপের বাছাইপর্ব থেকে বাদ পড়ায় অনেকেই ইতালি দলের কোচের সমালোচনা করে তাকে বরখাস্ত করার কথা বলছেন।

আর ধারাভাষ্যকার সান্দ্র পিচ্চিনিনি বলেছেন, পরপর দুটো ম্যাচে কোনও গোল করতে না পারা ইতালি ক্ষমার অযোগ্য।

নব্বই মিনিট সময়কালের খেলার বেশিরভাগ সময় বলের নিয়ন্ত্রণ ইতালির কাছে থাকলেও গোলের দেখা পায়নি তারা।

অন্যদিকে ততটা আক্রমণাত্মক খেলা দেখাতে না পারলেও, গোল খাওয়া ঠেকাতে পেরেছেন প্রথম লেগে ১-০ ব্যবধানে জয়ী সুইডেনের ফুটবলাররা।

২০০৬ সালে জার্মানিতে চ্যাম্পিয়ন হওয়ার পর ইতালি গত দুই বিশ্বকাপে গ্রুপ পর্ব পার হতে ব্যর্থ হয়।

বিবিসি বাংলায় আরো খবর:

ইরান-ইরাক সীমান্তের ভূমিকম্পটি বছরের ভয়াবহতম

হায়দ্রাবাদে ভিক্ষুক ধরিয়ে দিলে ৫০০ রুপি পুরস্কার

সম্পর্কিত বিষয়