বিক্রয়ে রেকর্ড গড়লো 'লিওনার্দো দ্য ভিঞ্চির চিত্রকর্ম যিশুক্রিস্ট'

পুরনো ছবিটি সংস্কার করার পর নতুন রূপ পেয়েছে (ডানদিকের ছবিটি) ছবির কপিরাইট CHRISTIE'S
Image caption পুরনো ছবিটি সংস্কার করার পর নতুন রূপ পেয়েছে (ডানদিকের ছবিটি)

লিওনার্দো দ্য ভিঞ্চির আঁকা ৫০০ বছরের পুরনো এক ছবি রেকর্ড দামে বিক্রি হয়েছে নিউ ইয়র্কে।

ভিঞ্চির চিত্রকর্ম 'যিশুখ্রিস্ট' প্রায় ৪৫০ মিলিয়ন ডলারে বিক্রি হয়েছে বাংলাদেশি টাকায় যার মূল্য প্রায় তিন হাজার সাতশো কোটি টাকা।

রেকর্ড দামে বিক্রি হওয়া ওই শিল্পকর্মটি ''স্যালভ্যাতো মুন্ডি (বিশ্বের ত্রাণকর্তা বা সেভিয়র অফ দ্য ওয়ার্ল্ড)" নামে পরিচিত।

যেকোনো চিত্রকর্মের ক্ষেত্রে এটিই সবচেয়ে বেশি দামে নিলামে উঠার রেকর্ড। যা নিয়ে ব্রিটিশ নিলাম ঘর ক্রিস্টি ব্যাপক খুশি।

লিওনার্দো দ্য ভিঞ্চি ১৫১৯ সালে মারা যান। তাঁর প্রায় ২০টির মতো চিত্রকর্ম এখনো টিকে আছে।

ধারণা করা হয়, এগুলোর মধ্যে 'স্যালভ্যাতো মুন্ডি' ১৫০৫ সালের কিছু পরে আঁকা হয়েছিল। আর এটি ব্যক্তিগত কারো সংগ্রহে ছিল।

চিত্রকর্মটির নিলামে চূড়ান্ত দাম ওঠে ৪০০ মিলিয়ন ডলার। বিভিন্ন ফি যুক্ত হয়ে এর মূল্য দাঁড়ায় ৪৫০ মিলিয়ন ডলারে।

যিনি এই চিত্রকর্মটি কিনেছেন তাঁর নাম জানা যায়নি, তিনি ২০ মিনিট ধরে টেলিফোনে নিলামে অংশগ্রহণ করেন।

Image caption সমালোচকের অভিমত, "চিত্রকর্মটি অনেক বার্নিশ ও ঘষামাজা করা হয়েছে।"

চিত্রকর্মটিতে দেখা যায়, যিশুখ্রিষ্ট এক হাত তুলে রয়েছেন, অন্য হাতে তিনি গোলাকার কাঁচের জিনিস ধরে আছেন।

১৯৫৮ সালে লন্ডনে এই চিত্রকর্মটি ৬০ ডলারে বিক্রি হয়েছিল। ওই সময় ধারণা করা হয়েছিল শিল্পকর্মটি লেওনার্দো নিজে আঁকেননি। এটি তাঁর কোনো অনুসারীর আঁকা।

বিবিসির শিল্প বিষয়ক সংবাদদাতা ভিনসেন্ট দাউদ জানিয়েছেন, এই চিত্রকর্মটি লিওনার্দোরই আঁকা তা বিশ্বব্যাপী স্বীকৃত হয়নি।

একজন সমালোচকের অভিমত, "চিত্রকর্মটি অনেক বার্নিশ ও ঘষামাজা করা হয়েছে। বহুবার এটি রঙ করা হয়েছে। এ কারণে এটি একই সঙ্গে নতুন ও পুরোনো মনে হয়"।

তবে নিলাম ঘর ক্রিস্টি দাবী করছে, চিত্রকর্মটি অকৃত্রিম। বিংশ শতাব্দীতে এই চিত্রকর্ম পুনঃআবিষ্কারকে বড় ঘটনা হিসেবে বর্ণনা করছে ক্রিস্টি।

বিবিসি বাংলার আরো খবর:

বাবরি মসজিদ-রাম মন্দির: ধর্মগুরুর পদক্ষেপ নিয়ে বিতর্ক

ভাইকিংদের শেষকৃত্যের পোশাকে কেন 'আল্লাহ' লেখা?

বাড়িতে আগুন লাগার পর বেরিয়ে এল ১৬০টি অস্ত্র

জিম্বাবুয়েতে ‘সেনা অভ্যুত্থান’: আফ্রিকান ইউনিয়ন

ছবির কপিরাইট AFP

সম্পর্কিত বিষয়