ভারতে মধ্যপ্রদেশের 'সুখ' বিষয়ক মন্ত্রীকে হত্যা মামলায় খোঁজা হচ্ছে

লাল সিং আর্য- ভারতের একমাত্র সুখ বিষয়ক মন্ত্রী ছবির কপিরাইট Lal Singh Arya
Image caption ২০০৯এর এক হত্যার ঘটনায় পুলিশ লাল সিং আর্যকে খুঁজছে। (ফাইল চিত্র)

ভারতে মধ্যপ্রদেশ রাজ্যের 'সুখ' বিষয়ক মন্ত্রীকে একটি হত্যার ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগ পুলিশ খুঁজছে।

ওই রাজ্যের একটি আদালত ৫৩ বছর বয়স্ক লাল সিং আর্যকে গ্রেপ্তারের নির্দেশ দেবার পর মঙ্গলবার থেকে তিনি নিখোঁজ রয়েছেন।

২০০৯ সালে বিরোধী একজন রাজনীতিকের হত্যার জন্য তাকে সন্দেহ করা হচ্ছে। মি: আর্য অবশ্য আগে তার বিরুদ্ধে এই অভিযোগ অস্বীকার করেছেন।

রাজ্যের নাগরিকদের সুখ বাড়ানোর লক্ষ্য নিয়ে ভারতে মধ্যপ্রদেশেই প্রথম এবং একমাত্র সুখ বিষয়ক একটি দপ্তর গঠন করা হয়।

২০১৬ সালের জুলাই মাসে ভারতীয় জনতা পার্টি (বিজেপি) নেতৃত্বাধীন সরকার এই দপ্তর গঠন করে। তাদের দায়িত্ব দেয়া হয় নাগরিকরা যাতে ''সুখী হয় এবং রাজ্যের নাগরিকদের সহিষ্ণুতা বাড়ে'' সেটা নিশ্চিত করা।

''মানুষ যাতে তার অন্তর্নিহিত সুখ উপলব্ধি করার মত পরিবেশে বাঁচতে সেই পরিবেশ গড়ে তোলার'' দায়িত্ব দেয়া হয় এই দপ্তরকে।

মধ্যপ্রদেশ ভারতের দ্বিতীয় সবচেয়ে বড় রাজ্যএবং সেখানে বাস করে সাত কোটি মানুষ।

এই দপ্তরকে সহায়তা করে স্টেট ইনস্টিটিউট অফ হ্যাপিনেস নামে একটি সংস্থা যাদের দায়িত্ব ''সুখী হওয়ার উপায় বের করা''।

দপ্তরে কাজ করে হাজার হাজার ''সুখসৃষ্টিকারী স্বেচ্ছাসেবী'' যারা ''সুখী হবার উপায় নিয়ে পরামর্শ দেন এবং কর্মসূচি সম্পর্কে মানুষকে জানান''।

ছবির কপিরাইট Prakash Hatvalne
Image caption ''সুখী হওয়ার কর্মসূচি''তে যারা যোগ দিয়েছে তারা দপ্তর থেকে সনদপত্র পেয়েছে।

এই দপ্তর গঠিত হবার পর থেকে এর প্রধানের দায়িত্ব পালন করছেন মি: আর্য। তিনি বিমান চলাচল, সাধারণ প্রশাসন এবং দলিত ও উপজাতি কল্যাণ দপ্তরসহ আরও পাঁচটি দপ্তরের প্রধান।

১৯শে ডিসেম্বর তাকে আদালতে হাজির হবার নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

''পুলিশ তাকে খুঁজছে। আমরা ১৯শে ডিসেম্বরের মধ্যে আমরা তাকে খুঁজে বার করতে পারব বলে মনে করছি,'' এএফপি বার্তা সংস্থাকে পুলিশ জানিয়েছে।

সম্পর্কিত বিষয়

চিঠিপত্র: সম্পাদকের উত্তর