বাংলাদেশে সংবিধানের ষোড়শ সংশোধনী বাতিলের রায় পুনর্বিবেচনার আবেদন করেছে রাষ্ট্রপক্ষ

বাংলাদেশে সুপ্রিম কোর্ট ভবন
Image caption বাংলাদেশে সুপ্রিম কোর্ট ভবন

বাংলাদেশে সংবিধানের ষোড়শ সংশোধনী অবৈধ ঘোষণা করে সর্বোচ্চ আদালতের দেয়া রায় পুনর্বিবেচনার আবেদন করেছে রাষ্ট্রপক্ষ।

আজ রোববার আপিল বিভাগে এই রিভিউ আবেদন জমা দেয়া হয় বলে সাংবাদিকদের জানিয়েছেন অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম।

নিজের কার্যালয়ে অ্যাটর্নি জেনারেল মি: আলম সাংবাদিকদের বলেন, "এই রায়ের বিরুদ্ধে আজ আমরা রিভিউ পিটিশন দায়ের করেছি এবং এই রিভিউ পিটিশন ভবিষ্যতে শুনানির অপেক্ষায় থাকবো। জাতীয় সংসদ আমাদের সংবিধানের মূল অনুচ্ছেদে ফিরে যেতে চায়, সেখানে আদালত এটাকে অবৈধ ঘোষণা করতে পারেনা, এই মর্মে অনেকগুলো গ্রাউন্ড আমরা নিয়েছি"।

বিচারপতিদের অপসারণের ক্ষমতা সংসদের কাছে ফিরিয়ে নিতে ২০১৪ সালের ১৭ সেপ্টেম্বর সংবিধানের ষোড়শ সংশোধনী জাতীয় সংসদে পাস হয়। এই সংশোধনীর বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে একই বছর সুপ্রিম কোর্টের নয়জন আইনজীবী হাইকোর্টে রিট আবেদন করেন।

এরপর গত বছরের ৫ই মে হাইকোর্টের বিশেষ বেঞ্চ ষোড়শ সংশোধনী অবৈধ ঘোষণা করে রায় দেয়।

সে রায়ের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রপক্ষ জানুয়ারি মাসে আপিল করে এবং শুনানি শেষে গত ৩ই জুলাই আপিল বিভাগ ওই আপিল খারিজ করে রায় দেয়। পূর্ণাঙ্গ রায় প্রকাশিত হয় গত পয়লা অগাস্ট।

সংবিধানের ষোড়শ সংশোধনী বাতিলের রায় নিয়ে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ এবং সরকারের কাছ থেকে প্রচণ্ড চাপের মুখে বিচারপতি এস কে সিনহা দেশ ছেড়ে যান বলে অভিযোগের মাঝে নভেম্বর মাসে আসে তার পদত্যাগ খবর।

সিঙ্গাপুরে বাংলাদেশ হাইকমিশনে পদত্যাগ পত্র জমা দেন মি: সিনহা।

অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম জানান, ৯০৮ পৃষ্ঠার আবেদনটিতে ৯৪টি যুক্তি তুলে ধরা হয়েছে। ষোড়শ সংশোধনী বাতিলের রায়ের সময় প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহার দেয়া বেশকিছু পর্যবেক্ষণও বাতিল চাওয়া হয়েছে আবেদনে।

আরও পড়তে পারেন:

প্রধান বিচারপতির পদত্যাগ: রাজনীতিতে কি প্রভাব?

প্রধান বিচারপতি পদত্যাগ করেছেন

কেমন শহর স্যান্টা ক্লজ?

সম্পর্কিত বিষয়

চিঠিপত্র: সম্পাদকের উত্তর