আজ প্রথম উড়লো চীনের তৈরি পৃথিবীর সবচেয়ে বড় 'উভচর বিমান'

ছবির কপিরাইট Getty Images
Image caption চীনের প্রথম উভচর বিমান

চীনের তৈরি প্রথম 'উভচর' বিমান এ জি সিক্স হান্ড্রেড আজ প্রথমবারের মতো আকাশে উড়েছে।

বলা হচ্ছে এটিই পৃথিবীর সবচেয়ে বড় উভচর বিমান - অর্থাৎ যা মাটিতে এবং জলে নামতে পারে। এটা প্রায় বোয়িং-৭৩৭ এর মতই বড় এবং এর দুই পাখার বিস্তার প্রায় ৪০ মিটার ।

'কুমলং' নামের এই বিমানটি চীনের গুয়াংডং প্রদেশের ঝুলাই বিমানবন্দর থেকেআকাশে ওড়ে।

এটি ৪০ জন যাত্রী বহন করতে পারে এবং একবার জ্বালানী নিয়ে একটানা ১২ ঘন্টা উড়তে পারে।

ছবির কপিরাইট Getty Images
Image caption এ জি সিক্স হান্ড্রেডের বেশ কিছু সামরিক প্রযুক্তিও আছে

এটি অগ্নিনির্বাপন এবং সামুদ্রিক উদ্ধার কাজ চালানোর কাজ করবে, কিন্তু বিমানটিতে সামরিক প্রযুক্তিও বসানো আছে - যা দক্ষিণ চীন সাগরে বিতর্কিত এলাকাগুলোয় কাজে লাগানো যেতে পারে।

এই সাগরের যে এলাকাগুলো চীন তার নিজের বলে দাবি করে - তার সর্বদক্ষিণ প্রান্ত পর্যন্ত যেতে পারবে এই কুনলং নামের বিমানটি ।

বিমানটির উড্ডয়ন এবং প্রত্যাবর্তনের খবর চীনা রাষ্ট্রীয় টিভিতে সরাসরি দেখানো হয়।

ছবির কপিরাইট Getty Images
Image caption বিমান উদ্বোধনের সময় তা দেখতে আসা লোকের ভিড়

একে স্বাগত জানানো হয় সামরিক সঙ্গীত এবং পতাকা দোলাতে-থাকা জনতা দিয়ে ।

দক্ষিণ চীন সাগরে চীনের নীতির কড়া বিরোধী প্রতিবেশী বেশ কয়েকটি দেশ।

জাতিসংঘ ভিত্তিক একটি ট্রাইবুনাল গত বছর চীনের দাবি খারিজও করে দিয়েছিল।

বিমানটি তৈরি করতে সময় লেগেছে আট বছর। আমেরিকান 'এভিয়েটর' হাওয়ার্ড হিউজেস অবশ্য ১৯৪৭ সালে এর চেয়েও বড় একটি উভচর বিমান তৈরি করেছিলেন।

কিন্তু সেটি আকাশে উড়েছিল মাত্র একবার, তাও ২৬ সেকেন্ডের জন্য।

বিবিসি বাংলায় আরো পড়ুন:

উত্তর কোরিয়ার সাথে যুদ্ধ বাধলে তিন সপ্তাহে মারা যাবে ২০ লাখ

বাংলাদেশে ষোড়শ সংশোধনী বাতিলের রায় পুনর্বিবেচনার আবেদন

রাশিয়ায় পুটিনকে চ্যালেঞ্জ করতে চান নাভালনি, পারবেন কি?

কেমন শহর স্যান্টা ক্লজ?

সম্পর্কিত বিষয়

চিঠিপত্র: সম্পাদকের উত্তর