ভারতে সচিন তেন্ডুলকারের মেয়েকে হয়রানির দায়ে বাঙালি যুবক গ্রেফতার

ছবির কপিরাইট Getty Images
Image caption মুমবাইতে ২০১১ সালে আইপিএলের একটি ম্যাচের সময় সপরিবারে সচিন তেন্ডুলকার

ভারতের সাবেক ক্রিকেটার সচিন তেন্ডুলকারের মেয়ে সারাকে উত্যক্ত করার অভিযোগে পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের এক যুবককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

অভিযোগে বলা হয়, পূর্ব মেদিনীপুরের দেবকুমার মাইতি নামে ৩২ বছর বয়স্ক এই বেকার ব্যক্তি কোনো উপায়ে সচিন তেন্ডুলকারের বাড়ি ও অফিসের ফোন নম্বর যোগাড় করেন এবং বার বার ফোন করতে থাকেন।

পুলিশকে উদ্ধৃত করে ভারতের সংবাদমাধ্যম জানাচ্ছে, গত ২রা জানুয়ারি মি. মাইতি অন্তত ২০ বার মি. তেন্ডুলকারের বাড়িতে ফোন করেন। তিনি সারা তেন্ডুলকারের সাথে কথা বলতে চান, তাকে বিয়ে করার প্রস্তাব দেন এবং তা না হলে অপহরণ করারও হুমকি দেন বলে রিপোর্টে বলা হয়।

এর পর বান্দ্রা থানায় এক মামলা করেন সচিন তেন্ডুলকার। এরপর পুলিশ অনুসন্ধান করে মেদিনীপুরে মি. মাইতির অবস্থান চিহ্নিত করে, পরে তাকে গ্রেফতার করে মুম্বাইয়ে নিয়ে আসা হয়।

তাকে জিজ্ঞাসাবাদের পর সোমবার আদালতে হাজির করা হয়।

আদালতে হাজির করার পর মি. মাইতি দাবি করেন, সচিন তেন্ডুলকার তার 'শ্বশুর'।

সংবাদমাধ্যমের রিপোর্ট বলছে, মি. মাইতি দাবি করেন তিনি একটি ক্রিকেট ম্যাচ দেখতে গিয়ে 'প্রথম দর্শনেই সারার প্রেমে পড়েন'।

মি. মাইতির পরিবার বলছে, তিনি দীর্ঘদিন ধরে মানসিক ভারসাম্যহীনতার সমস্যায় আক্রান্ত।

কিভাবে মি. মাইতি কিভাবে সচিন তেন্ডুলকারের বাড়ির ফোন নম্বর পেলেন, পুলিশ এখন তার তদন্ত করছে।

বিবিসি বাংলায় আরো পড়ুন:

মিরপুর স্টেডিয়াম কি নিষিদ্ধ হবার শঙ্কা আছে?

বাংলাদেশে তাপমাত্রা নেমে এসেছে তিন ডিগ্রিরও নীচে

শিক্ষকদের হাতে বেদম মার খেলেন অভিভাবক

সম্পর্কিত বিষয়

চিঠিপত্র: সম্পাদকের উত্তর