উত্তর সিরিয়ায় কুর্দি যোদ্ধাদের বিরুদ্ধে তুরস্কের অভিযান কার্যত 'শুরু হয়ে গেছে', বললেন এরদোয়ান

ছবির কপিরাইট Getty Images
Image caption আফরিনে প্রহরারত একজন ওয়াইপিজি যোদ্ধা

তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রেচেপ তাইয়িপ এরদোয়ান বলেছেন, সিরিয়ার উত্তরাঞ্চলে কুর্দি মিলিশিয়াদের বিরুদ্ধে তাদের স্থল অভিযান কার্যত শুরু হয়ে গেছে।

তুরস্কের সেনাবাহিনী স্থল-অভিযানের আগে আজ দ্বিতীয় দিনের মতো কুর্দি মিলিশিয়াদের অবস্থান লক্ষ্য করে গোলাবর্ষণ করেছে।

গত রাতে আফরিনের বিভিন্ন লক্ষ্যবস্তুতে প্রায় ৭০টি কামানের গোলা বর্ষণ করা হয় বলে, কুর্দি মিলিশিয়া ওয়াইপিজি বলছে।

ছবির কপিরাইট Getty Images
Image caption অভিযানের জন্য তৈরি হচ্ছে তুর্কি ট্যাংক

মি. এরদোয়ান অবশ্য বলেন নি যে তার বাহিনী সিরিয়ার ভিতরে ঢুকেছে কিনা।

তবে তিনি বলেছেন,আফরিনের ১০০ কিলোমিটার দূরের মানবিজ হবে তার পরবর্তী টার্গেট।

সেখানে মোতায়েন করা রাশিয়ার সৈন্যদের এলাকা থেকে প্রত্যাহার করা হচ্ছে বলে খবর বেরুনোর পর রুশ পররাষ্ট্রমন্ত্রী তা অস্বীকার করেছেন।

ছবির কপিরাইট Getty Images
Image caption তুরস্কের প্রেসিডেন্ট এরদোয়ান

রাশিয়া অবশ্য বলেছে আফরিনের লড়াইয়ে তারা হস্তক্ষেপ করবে না।

সিরিয়া ইতিমধ্যে এরকম অভিযানের ব্যপারে হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করে বলেছে, তুর্কি বিমান উড়তে দেখলে তা গুলি করে নামানো হবে।

সিরিয়ার আফরিন অঞ্চলটি ২০১২ সাল থেকে কুর্দি নিয়ন্ত্রণে আছে।

গত কয়েক মাস ধরেই তুরস্ক বলছিল তারা এলাকাটিকে ওয়াইপিজি-মুক্ত করবে।

ছবির কপিরাইট Getty Images
Image caption আফরিনে অভিযানের প্রতিবাদের কুর্দিদের বিক্ষোভ

কয়েকদিন আগে মার্কিন-নেতৃত্বাধীন কোয়ালিশন সিরিয়ার উত্তরাঞ্চলে একটি নতুন সীমান্তরক্ষী বাহিনী গঠনের কথা ঘোষণা করে। এই সামরিক অভিযানের প্রস্তুতি হিসেবে গত কদিন ধরেই তুরস্ক সীমান্তে ব্যাপক সৈন্য সমাবেশ ঘটাচ্ছিল।

তুরস্ক এই কুর্দি মিলিশিয়াদের সন্ত্রাসী বলে গণ্য করে এবং তুরস্কের ভেতরের কুর্দি গেরিলাদের সঙ্গে তাদের যোগাযোগ আছে বলে মনে করে।

প্রেসিডেন্ট এরদোয়ান আজ আবার বলেছেন, সিরিয়ার কুর্দি বাহিনীগুলো পিকেকে'র অবিচ্ছেদ্য অংশ - যারা তুরস্কের ভেতরে কয়েক দশক ধরে বিচ্ছিন্নতাবাদী তৎপরতা চালাচ্ছে।

সম্পর্কিত বিষয়