ভারতের কলকাতা থেকে ঢাকা যাবার পথে মৈত্রী এক্সপ্রেসে বাংলাদেশী নারীর ওপর যৌন হামলার অভিযোগ

মৈত্রী এক্সপ্রেস, কলকাতার প্ল্যাটফর্মে। ছবির কপিরাইট DIBYANGSHU SARKAR
Image caption মৈত্রী এক্সপ্রেস, কলকাতার প্ল্যাটফর্মে।

কলকাতা-ঢাকা মৈত্রী এক্সপ্রেসে এক বাংলাদেশী নারীর ওপর যৌন হামলা করা হয়েছে বলে অভিযোগ দায়ের হয়েছে পশ্চিমবঙ্গ পুলিশের কাছে।

ট্রেনটির নিরাপত্তায় থাকেন যে বিএসএফ সদস্যরা, তাঁদেরই একজনের বিরুদ্ধে পুলিশের কাছে অভিযোগ করেছেন ওই নারী এবং তাঁর স্বামী।

পূর্ব রেল কর্তৃপক্ষ বলছে, সোমবার সকালে কলকাতা স্টেশন থেকে ঢাকার উদ্দেশ্যে মৈত্রী এক্সপ্রেস রওনা হওয়ার কিছুক্ষণ পরে ওই বাংলাদেশী নারী ট্রেনের টয়লেটে গিয়েছিলেন। ট্রেনটি তখন দমদম আর ব্যারাকপুরের মধ্যে ছিল।

অভিযোগ, ওই সময়েই টয়লেটের ভেতরে ঢুকে পড়ে ওই নারী যাত্রীর ওপর যৌন হামলা করেন এক বিএসএফ সদস্য।

ওই নারী যাত্রী তাঁর আসনে ফিরে এসে স্বামীকে ঘটনাটি জানাতেই বিষয়টি চলমান টিকিট পরীক্ষকের নজরে আনা হয় এবং সীমান্তবর্তী স্টেশন গেদে-তে পৌঁছানর পরে আনুষ্ঠানিক এফআইআর দায়ের করা হয়।

পূর্ব রেলের মুখপাত্র রবি মহাপাত্র বিবিসি বাংলাকে ওই ঘটনা নিশ্চিত করেছেন।

"এক বিএসএফ সদস্যর বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের হয়েছে। যে স্টেশনের কাছে ঘটনা ঘটেছে, সেখানকার রেল পুলিশ তদন্ত শুরু করেছে," বলেছেন মি. মহাপাত্র।

বিএসএফ কর্তৃপক্ষ বলছে, তারাও রেলের কাছ থেকে বাংলাদেশী নারীর ওপর যৌন হামলার বিষয়টি জেনেছে।

বিএসএফের দক্ষিণ বঙ্গ সীমান্ত অঞ্চলের এক সিনিয়র কর্মকর্তা বিবিসিকে জানান, এই গুরুতর অভিযোগ পাওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই তারা তদন্ত শুরু করেছেন।

আগে মৈত্রী এক্সপ্রেসের নিরাপত্তার দায়িত্বে রেল সুরক্ষা বাহিনী এবং রেল পুলিশ থাকলেও এখন ট্রেনটির গোটা যাত্রাপথেই নিরাপত্তার দায়িত্ব থাকে বিএসএফের ওপরে।

আরও দেখুন:

লন্ডন মসজিদে হামলাকারী: 'যত বেশি সম্ভব মুসলিম মারতে চেয়েছি।'

মিয়ানমারে কেন ফিরতে ইচ্ছুক নন রোহিঙ্গারা?

ছবির কপিরাইট DESHAKALYAN CHOWDHURY
Image caption মৈত্রী এক্সপ্রেস, ২০০৮ সালের ১৪ই এপ্রিল উদ্বোধনের দিনে।

সম্পর্কিত বিষয়