বলিউড ছবি 'পদ্মাবত'-এর বিরুদ্ধে ভারতের নানা রাজ্যে ভাঙচুর, জ্বালাও পোড়াও

জম্মুতে সিনেমা হলের টিকেট কাউন্টারে আগুন। ছবির কপিরাইট ALOK PATHANIA
Image caption জম্মুতে সিনেমা হলের টিকেট কাউন্টারে আগুন।

ভারতে ৭০০ বছর আগেকার চিতোরের রানি পদ্মিনীর জীবন নিয়ে তৈরি বিতর্কিত বলিউড ছবি 'পদ্মাবতে'র মুক্তির আগের দিন রাজপুত কার্নি সেনা-সহ বিভিন্ন সংগঠন সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশ অমান্য করে দেশের নানা প্রান্তে তুমুল বিক্ষোভ দেখাচ্ছে।

বহু জায়গায় রাস্তা অবরোধ করা হয়েছে ও অনেক গাড়িঘোড়া জ্বালিয়ে দেওয়া হয়েছে। ভাঙচুর চালানো হয়েছে গুজরাটের নানা মাল্টিপ্লেক্সেও।

এই সব দাঙ্গাহাঙ্গামা শুরু হয়ে গেছে মঙ্গলবার রাত থেকেই।

এই পটভূমিতে গুজরাট, হরিয়ানা ও রাজস্থানে সিনেমা হল মালিকরা নিজে থেকেই সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তারা তাদের মালিকানাধীন হলগুলোতে পদ্মাবত দেখানোর ঝুঁকি নেবেন না।

এর আগে এই তিন রাজ্যই ছবিটি নিষিদ্ধ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছিল।

এদিকে রাজস্থানের যে চিতোর গড় ছিল রানি পদ্মিনীর প্রাসাদ, সেই দুর্গটি কার্নি সেনার হামলার ভয়ে বুধবার বন্ধ রাখা হয়েছে।

ওই দুর্গের শত শত বছরের ইতিহাসে এই নিয়ে দ্বিতীয়বার কোনও কারণে চিতোর গড় বন্ধ রাখা হল।

ছবির কপিরাইট STR
Image caption পদ্মাবতের ভূমিকায় অভিনয় করেছেন দীপিকা পাডুকোন

আরো দেখুন:

জুবায়ের হত্যা: 'ছাত্র সংগঠনগুলোর অনৈতিক কর্মকাণ্ডের পরিণতি'

যেভাবে ছড়ায় সাংবাদিক ও পুলিশের বচসার ভিডিও

হাসপাতালে বাচ্চা বদল: সিনেমার চেয়েও নাটকীয়

এদিকে বিক্ষোভকারীরা বুধবার দুপুর থেকেই দিল্লি-জয়পুর জাতীয় সড়ক অবরোধ করা শুরু করে।

দিল্লি-আজমির জাতীয় সড়কেও জড়ো হয়ে কার্নি সেনার সদস্যরা টায়ার জ্বালাতে শুরু করে।

এর আগে মঙ্গলবার রাতে গুজরাটের বিভিন্ন মাল্টিপ্লেক্সে ব্যাপক ভাঙচুর চালানো হয়।

পদ্মাবতের বিরোধীরা অন্তত ৫০টি গাড়ি ও টু-হুইলারে আগুন ধরিয়ে দেন, অনেক দোকানের কাঁচ ভেঙে দেওয়া হয়।

এর মধ্যে মুম্বাইতে আগাম সতর্কতামূলক পদক্ষেপ হিসেবে জনা তিরিশেক কার্নি সেনা কর্মীকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

গুজরাটের প্রধান শহর আহমেদাবাদেও আটক হয়েছেন অন্তত ৪৪জন।

তবে এর পরও কার্নি সেনার প্রধান লোকেন্দ্র কালভি জানিয়েছেন, "অনেক ২৫শে জানুয়ারি আসবে যাবে - কিন্তু কিছুতেই আমরা এই ধরনের অবমাননাকর একটি ফিল্মের প্রদর্শন হতে দেব না।"

এর আগে ভারতের সুপ্রিম কোর্ট গত সপ্তাহে নির্দেশ দিয়েছিল, আইন-শৃঙ্খলা রক্ষার দোহাই দিয়ে কোনও রাজ্য আলাদাভাবে এই ছবি নিষিদ্ধ করতে পারবে না এবং ২৫শে জানুয়ারি সারা দেশে এক সঙ্গেই ছবিটি মুক্তি পাবে।

ছবির কপিরাইট SAM PANTHAKY
Image caption আহমেদাবাদে বাসে ভাঙচুর

সম্পর্কিত বিষয়