ছুটে আসা ট্রেন পেছনে রেখে মোবাইলে নিজেকে ভিডিও করছিলেন এই তরুণ, তারপর কী ঘটলো?

আপনার ডিভাইস মিডিয়া প্লেব্যাক সমর্থন করে না
সেলফি তোলার সময় ট্রেনটি এসে আঘাত করার আগের মূহুর্ত

ছুটে আসা এক চলন্ত ট্রেনের সঙ্গে রেল লাইনের ধারে দাঁড়িয়ে মোবাইল ফোনে নিজেকে ভিডিও করছেন এক তরুণ। ট্রেনটি খুবই কাছে চলে এসেছে। ভিডিওটিতে এরপর কি আছে তা আমরা এখানে দেখাতে পারছি না।

কিন্তু ইউটিউবে যে হাজার হাজার মানুষ ইতোমধ্যে ভিডিওটি দেখেছেন, তারা জানেন এই তরুণের ভাগ্যে কি ঘটেছে। ট্রেনের ধাক্কায় গুরুতর আহত হয়েছেন তিনি, যদিও এই যাত্রায় প্রাণে বেঁচে গেছেন।

ঘটনাটি ভারতের হায়দরাবাদ নগরীর। গত ২১ শে জানুয়ারী সেখানে বোরাবান্ডা স্টেশনে মোবাইলে নিজের সেলফি ভিডিও তুলতে গিয়ে শরীরচর্চা প্রশিক্ষক টি সিলভা এই দুর্ঘটনার শিকার হন।

সাউথ সেন্ট্রাল রেলওয়ে পুলিশ জানিয়েছে, ট্রেনের ধাক্কায় তাঁর মাথায় আঘাত লাগে।

বিপদজনকভাবে নিজের এবং অন্যদের জীবন হুমকিতে ফেলার জন্য তাকে ৫০০ রূপী জরিমানা করা হয়।

আরও পড়ুন:

রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন: নানা রকম বার্তা ছড়াচ্ছে আশ্রয় শিবিরগুলোতে

ধূমপান কমিয়ে লাভ নেই - ব্রিটেনে নতুন গবেষণা

আলংকারিক, তবু প্রেসিডেন্ট পদ নিয়ে রাজনীতি কেন?

তার রেকর্ড করা ভিডিওটি অবশ্য ছড়িয়ে পড়েছে ইউটিউবে। সেখানে হাজার হাজার মানুষ এই ভিডিওটি দেখেছেন।

২১ সেকেন্ডের এই ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে মিস্টার সিলভা রেললাইনের একেবারে কাছ ঘেঁষে দাড়িয়ে আসছেন। দ্রুত ছুটে আসছে একটি ট্রেন।

কাছেই কাউকে অস্পষ্ট স্বরে তাকে সাবধান করতে শোনা যাচ্ছে। ট্রেন থেকে ক্রমাগত হর্ণও বাজানো হচ্ছে তাকে সতর্ক করার জন্য।

কিন্তু মিস্টার সিলভা তার জায়গাতেই দাঁড়িয়ে থেকে মোবাইল ফোনে নিজের ভিডিও ছবি তুলে যাচ্ছেন এবং বলছেন, 'আর এক মিনিট'।

ভিডিওতে এরপর দেখা যায় দ্রুতগামী ট্রেনটি তার মাথা এবং শরীরের ডানদিকে আঘাত করে এবং ফোনটি মাটিতে পড়ে যায়।

ভারতের ছুটে আসা ট্রেনকে পেছনে রেখে নিজেকে ভিডিও করার এই বিপদজনক খেলা খুবই জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে।

গত বছরের অক্টোবরে কর্ণাটকে এভাবে সেলফি তুলতে গিয়ে ট্রেনের নীচে কাটা পরে তিন তরুণ। এর আগে দিল্লিীতেও একইভাবে দুজন তরুণ নিহত হয়।

ছবির কপিরাইট Asif Saud
Image caption কর্ণাটকে রেললাইনের ধারে যেখানে সেলফি তুলতে গিয়ে তিনজন ট্রেনের নীচে চাপা পড়ে সেই জায়গাটি দেখাচ্ছেন এক তরুণ

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, তরুণরা যেভাবে সোশ্যাল মিডিয়া নিয়ে মোহগ্রস্থ হয়ে পড়েছেন তাতে সেলফি তোলার জন্য অনেকে খুবই বেপরোয়া এবং বিপদজনক সব কাজ করছেন।

বিশ্বে সেলফি তুলতে গিয়ে সবচেয়ে বেশি মানুষ মারা যায় ভারতে। ২০১৪ সালের মার্চ হতে ২০১৬ সালের সেপ্টেম্বর পর্যন্ত বিশ্বে মোট ১২৭ টি 'সেলফি মৃত্যুর' ঘটনা রেকর্ড করা হয়েছে। এর মধ্যে ৭৬টিই ঘটেছে ভারতে। এদের বেশিরভাগই তরুণ। সেলফি মৃত্যু নিয়ে এই গবেষণাটি করেছেন যুক্তরাষ্ট্রের কার্ণেগি মেলন বিশ্ববিদ্যালয়ের এক পিএইচডি গবেষক হেমন্ক লাম্বা ।

ভারতে সেলফি তুলতে গিয়ে মৃত্যুর বেশিরভাগ ঘটনাই ঘটছে রেল লাইনের ধারে। গবেষক মিস্টার লাম্বা বলেন, রেললাইনের ধারে প্রিয়জনের সঙ্গে এভাবে সেলফি তোলাকে ভারতে বেশ 'রোমান্টিক' বলে গণ্য করা হয়।

টুইটারে শেয়ার করা ভিডিওটির নীচে বেশিরভাগ মন্তব্যে অনেকে এই ঘটনাকে খুবই 'ভয়ংকর',' পাগলামি' এবং 'ঝুঁকিপূর্ণ' বলে মন্তব্য করেছেন।

ভারতের সাউথ সেন্ট্রাল রেলওয়ে পুলিশের একজন কমকর্তা বিবিসিকে জানিয়েছেন, ভারতের রেলওয়ে আইনের ধারায় লোকটিকে জরিমানা করা হয়েছে। তিনি বলেন, রেললাইনের ধারে এভাবে অনুপ্রবেশ করে সেলফি তোলা ভারতীয় রেল আইনের ধারায় শাস্তিযোগ্য অপরাধ।