বাংলাদেশে বিরোধীদল বিএনপির নেত্রী খালেদা জিয়া আগামী নির্বাচনে অংশগ্রহণের জন্য কিছু শর্ত বেঁধে দিয়েছেন

Image caption বিএনপির নির্বাহী কমিটির সভায় খালেদা জিয়া

বাংলাদেশে বিগত নির্বাচন বর্জনকারী প্রধান বিরোধীদল বিএনপির চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়া বলেছেন, তারা আগামী নির্বাচনে অংশগ্রহণ করতে চান, কিন্তু তার জন্য সরকারকে কয়েকটি শর্ত পূরণ করতে হবে।

আজ ঢাকায় দলের নির্বাহী কমিটির সভায় দেয়া ভাষণে তিনি বলেন, সরকার বিএনপিকে 'মাইনাস' করে নির্বাচন করতে চায়।

আগামী ৮ই ফেব্রুয়ারি খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে করা একটি দুর্নীতির মামলার রায় হবার কথা - এবং এ নিয়ে দলটির ভেতরে উদ্বেগ ছড়িয়ে পড়ার মধ্যেই বিএনপির কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির এই সভা হয় ঢাকার লা মেরিডিয়ান হোটেলে।

Image caption ঢাকার লা মেরিডিয়ান নামে একটি হোটেলে অনুষ্ঠিত হয় এই নির্বাহী কমিটির সভা

এ বিষয়ে খালেদা জিয়া তার ভাষণে বলেন, তাকে যদি গ্রেফতার করা হয় তাহলেও তার প্রতিবাদ যেন শান্তিপূর্ণ হয়।

তিনি বলেন, বিএনপি নির্বাচন করতে চায়। "জনগণ পরিবর্তন চায় এবং নির্বাচনের মধ্যে দিয়েই সে পরিবর্তন আসতে হবে" - বলেন তিনি ।

Image caption বৈঠকে তারেক রহমানের ভিডিও বার্তা প্রচার করা হয়

নির্বাচনে অংশ নেবার যেসব পূর্বশর্ত খালেদা জিয়া তার ভাষণে উল্লেখ করেন সেগুলো হচ্ছে: নির্দলীয়-নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে নির্বাচন দিতে হবে, বর্তমান সংসদ ভেঙে দিতে হবে, নির্বাচন কমিশনকে নিরপেক্ষভাবে কাজ করতে হবে, সেনাবাহিনী মোতায়েন করতে হবে, জনগণ যাতে ভোটকেন্দ্রে যেতে পারে তার পরিবেশ তৈরি করতে হবে, ইভিএম ব্যবহার করা যাবে না।

বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান এবং খালেদা জিয়ার বড় ছেলে তারেক রহমান লন্ডন থেকে ভিডিও কনফারেন্সিং-এর মাধ্যমে এ সভায় যোগ দিয়ে একটি ভিডিও বার্তা দেন।

Image caption সম্মেলনস্থলের বাইরে থেকে ৩০ জন নেতাকর্মীকে পুলিশ আটক করেছে বলে অভিযোগ করেছে বিএনপি

বিএনপির নির্বাহী কমিটির সভায় এর ৪৫০ জন সদস্য যোগ দিয়েছেন বলে জানানো হয়। লা মেরিডিয়ান হোটেলের সামনে থেকে পুলিশ ৩০ জন নেতাকর্মীকে আটক করেছে বলে অভিযোগ করেছে বিএনপি।

আগামী ৮ই ফেব্রুয়ারি জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলার রায় ঘোষিত হবার কথা।