ঢাকার প্রবেশমুখে তল্লাশি, মেসবাড়িগুলোতে পুলিশ

গাবতলির কাছে গাড়ি থেকে নামিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করছে পুলিশ
Image caption গাবতলির কাছে গাড়ি থেকে নামিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করছে পুলিশ

বৃহস্পতিবার বাংলাদেশের প্রধান বিরোধী দল বিএনপির নেত্রী খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে একটি দুর্নীতি মামলার রায়ের আগের দিন রাজধানী ঢাকার প্রবেশমুখগুলোতে পুলিশ বাস-গাড়ি থামিয়ে তল্লাশি করছে।

বিবিসির সংবাদদাতা আকবর হোসেন গাবতলি বাস টার্মিনাল-মুখী মহাসড়কে গিয়ে দেখতে পেয়েছেন পুলিশ ঢাকার বাইরে থেকে আসা বাসগুলোতে উঠে তল্লাশি করছে। এমনকি প্রাইভেট কার এবং মাইক্রোবাস থেকে যাত্রীদের নামিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করছে।

এই তল্লাশির কারণে সাভার থেকে গাবতলি-মুখী মহাসড়কে লম্বা যানজট তৈরি হয়েছে।

জানা গেছে, ঢাকায় ঢোকার আটটি প্রবেশমুখে একই ধরণের তল্লাশি চালানো হচ্ছে।

একইসাথে, কলেজ বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্ররা থাকে এরকম অনেক মেসবাড়িতে পুলিশ তল্লাশি চালাচ্ছে বলে খবর পাওয়া গেছে।

গাবতলিতে একজন পুলিশ কর্মকর্তা, নাম না প্রকাশের শর্তে, বিবিসিকে বলেছেন, ঢাকার বাইরে থেকে এসে কেউ যেন কোনো নাশকতায় লিপ্ত না হতে পারে, সে জন্য সরকারের কাছ থেকে শহরমুখে তল্লাশির নির্দেশনা রয়েছে।

জানা গোছ, ঢাকা-মুখী মহাসড়কগুলোর বিভিন্ন জায়গায় এ ধরণের পুলিশি তল্লাশি হচ্ছে।

আরও পড়ুন: খালেদা মামলার রায়কে ঘিরে কেন এত শঙ্কা-বিতর্ক?

নির্বাচনে যেতে চাই তবে শর্ত পূরণ করতে হবে: খালেদা

Image caption গাবতলি টার্মিনালের কাছে মহাসড়কে পুলিশি তল্লাশি

সকাল থেকে শহরের বিভিন্ন জায়গা ঘুরে সংবাদদাতা আকবর হোসেন নগরবাসীদের মধ্যে চাপা উত্তেজনা প্রত্যক্ষ করেছেন।

আগামীকাল (বৃহস্পতিবার) কর্মস্থলে যাওয়া নিয়ে বা বাচ্চাদের স্কুলে পাঠানো নিয়ে দ্বিধাদ্বন্দ্বে পড়েছেন অনেকে।

ঢাকার শাহীন স্কুলের সামনে একাধিক অভিভাবক বিবিসিকে বলেছেন, বাচ্চাদের তারা স্কুলে নাও পাঠাতে পারেন।

সাগর আহমেদ- যিনি প্রতিদিন গাড়ি চালিয়ে তার ছেলেকে স্কুলে নামিয়ে দেন - বলেন, "একটা রায় নিয়ে যে পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে, তাতে আমি উদ্বিগ্ন, আগামীকাল বাচ্চাদের স্কুলে আনা-নেয়া ঝুঁকি হতে পারে। বাসায় থাকাটাই নিরাপদ মনে করছি। কখন কী হয় বলা মুশকিল।"

বৃহস্পতিবার ভোর রাত থেকে ঢাকায় সবধরনের মিছিল- মিটিং-সমাবেশ নিষিদ্ধ করেছে পুলিশ।

বিএনপি দাবি করছে ঢাকা এবং ঢাকার বাইরে গত কয়েকদিনে তাদের এক হাজারেরও বেশি নেতা-কর্মীকে আটক করা হয়েছে।