সুন্নিদের মক্কা মসজিদে স্বাগত জানানো হলো ইরানের প্রেসিডেন্ট ও শিয়া নেতা হাসান রোহানিকে

ইরানের প্রেসিডেন্ট হাসান রোহানি। ছবির কপিরাইট Getty Images
Image caption ইরানের প্রেসিডেন্ট হাসান রোহানি।

ইরানের প্রেসিডেন্ট হাসান রোহানি হায়দ্রাবাদ শহর দিয়ে তার ভারত সফর শুরু করার মধ্য দিয়ে এই শহরের সাথে ইরানের ৫০০ বছরের সম্পর্কের ওপর আলোকপাত করেছেন।

শুক্রবার তিনি মক্কা মসজিদে জুম্মার নামাজ আদায় করেছেন।

যদিও এটি সুন্নিদের মসজিদ। কিন্তু তারপরও এই ঐতিহাসিক মসজিদের দরোজা খুলে দিয়ে স্বাগত জানানো হয়েছে এই শিয়া রাজনৈতিক নেতাকে।

নামাজ আদায়ের পর তিনি উপস্থিত মুসল্লিদের প্রতি একটি ভাষণও দিয়েছেন।

হায়দ্রাবাদ শহরের প্রতীক বিখ্যাত তোরণ চারমিনারের কাছে এই মসজিদটি নির্মাণ করা হয়েছে কুতুব শাহী আমলে।

এর ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন করা হয় ১৬১৬-১৭ সালে।

সেটি ছিল সুলতান মুহাম্মদ কুতুবের রাজত্বকাল।

কুতুব শাহী সুলতানেরা ১৫১৮ সোল থেকে ১৬৮৭ সাল পর্যন্ত দাক্ষিণাত্যের গোলকোন্ডা রাজ্য শাসন করেছেন।

ছবির কপিরাইট Getty Images
Image caption হায়দ্রাবাদের মুসলমানদের মাঝে ইরানি প্রেসিডেন্ট।

এই বংশের ৬ষ্ঠ সুলতান মোহাম্মদ কুলি ১৫৯১ সালে হায়দ্রাবাদ শহরের পত্তন করেন।

এই শহরে তিনি সুরম্য প্রাসাদ ও বাগান নির্মাণ করান এবং খাল খনন করান।

এর মধ্যে সবচেয়ে জনপ্রিয় হচ্ছে চারমিনার।

ইরানের মাশহাদ এবং ইসফাহান শহরের ভবনের আদলে চুনাপাথর দিয়ে এই তোরণটি নির্মাণ করা হয়।

প্রেসিডেন্ট রোহানি তার সফরের সময় কুতুব শাহী সুলতানদের কবরও জিয়ারত করেন।

এই রাজবংশের পূর্বপুরুষরা ইরান থেকে ভারতে এসেছিলেন বলে দাবি করা হয়।

ছবির কপিরাইট Getty Images
Image caption হায়দ্রাবাদের বিখ্যাত তোরণ চারমিনার।

আরো পড়ুন:

রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনের প্রথম তালিকা হস্তান্তর

এরশাদ যেভাবে রাজনীতিতে টিকে গেলেন

জাগদল থেকে বিএনপি: রাজনীতিতে জিয়ার উত্থান

পুরুষ সেজে দুটো বিয়ে করে ভারতে গ্রেপ্তার নারী

জমিয়ে রাখা শুক্রাণু থেকে যমজ শিশুর জন্ম ভারতে