সিরিয়ায় যুদ্ধে এক দিনেই ১০০ বেসামরিক লোক নিহত

ছবির কপিরাইট EPA
Image caption হাসপাতালে আহত শিশুদের কান্না

সিরিয়ার বিদ্রোহী নিয়ন্ত্রিত ইস্টার্ন ঘুটা এলাকায় সরকারি বাহিনীর বোমাবর্ষণে কমপক্ষে ১০০ লোক বেসামরিক নিহত হয়েছে - যার মধ্যে ২০টি শিশু।

সিরিয়ান অবজারভেটরি ফর হিউম্যান রাইটস বলছে ২০১৫ সালের পর একদিনে বেসামরিক লোক নিহত হবার এটাই সর্বোচ্চ সংখ্যা।

রাজধানী দামেস্কের নিকটবর্তী এই এলাকাটিতে এখন সরকারি বাহিনীর যে অভিযান চলছে - এত তীব্র আক্রমণ গত কয়েক বছরে দেখা যায় নি। এ মাসের শুরু থেকেই সিরিয়ান বাহিনী পূর্ব ঘুটা পুনর্দখলের জন্য অভিযান তীব্রতর করেছে। এতে শত শত বেসামরিক লোক নিহত হবার খবর পাওয়া গেছে।

বিবিসির সংবাদদাতা লিনা সিনজাব জানাচ্ছেন, শুধু যে বেসামরিক লোকদের ওপর বোমাবর্ষণ হচ্ছে তাই নয় - রুটির দোকান, খাবারের গুদাম বা যেখানেই কোন রকম খাবার মজুত করে রাখা যায় সেখানেই হামলা হচ্ছে।

বিবিসি বাংলায় আরো পড়ুন:

উপদ্রব আর শিশুদের বিরক্তির কারণ সৌদি মসজিদ?

প্রেম, বিয়ে - অতপর বন্দী আর শঙ্কার জীবন

সিরিয়ায় যুদ্ধে এক দিনেই ১০০ বেসামরিক লোক নিহত

ছবির কপিরাইট .
Image caption বিস্ফোরণে বিধ্বস্ত ভবন থেকে শিশুকে নিয়ে পালাচ্ছেন একজন

আক্রান্ত হয়েছে হাসপাতাল, এবং বড় বড় রাস্তাগুলোও - যার ফলে এ্যাম্বুলেন্স বা ত্রাণবাহী যানবহরের চলাচলও বন্ধ হয়ে হয়ে যাবে।

এই এলাকাটি যে বিদ্রোহী গ্রুপগুলোর নিয়ন্ত্রণে তারা হচ্ছে জয়েশ আল-ইসলাম,আল-রহমান কোর, এবং হায়াত তাহরির আল-শাম। রাজধানী দামেস্কের কাছে এটাই একমাত্র বিদ্রোহী নিয়ন্ত্রিত এলাকা।

বিদ্রোহীরা মর্টার আক্রমণ চালিয়ে জবাব দেবার চেষ্টা করছে কিন্তু সরকারি বাহিনীর অস্ত্রের ক্ষমতা অনেক বেশি।

অনেকে আশংকা প্রকাশ করেছেন যে এখানে হয়তো আরেকটি আলেপ্পোর মত অবস্থা তৈরি হতে পারে।

সম্পর্কিত বিষয়