মালিতে মাইন বিস্ফোরণে চার বাংলাদেশি শান্তিরক্ষী নিহত

ছবির কপিরাইট Getty Images
Image caption মালিতে শান্তিরক্ষী হিসাবে এখন আটশো সেনা সদস্য নিয়োজিত আছে

মালিতে রাস্তার পাশে পুঁতে রাখা মাইন বিস্ফোরণে জাতিসংঘের শান্তিরক্ষী বাহিনীতে থাকা বাংলাদেশি চার সেনা সদস্য নিহত হয়েছেন।

আহত হয়েছেন আরো চারজন।

বুধবার মালির মোপ্তি এলাকার বনি ও দোয়েন্তজা শহরের একটি সড়কে গাড়িতে করে যাওয়ার সময় এই হতাহতের ঘটনা ঘটে।

আরো পড়ুনঃ

হোয়াইট হাউজের যোগাযোগ প্রধানের পদত্যাগ

বাংলাদেশের জাতীয় পার্টির নিয়ন্ত্রণ কার হাতে?

হতাহতরা বাংলাদেশি সেনা সদস্য বলে বাংলাদেশের আন্তঃ বাহিনী জনসংযোগ পরিদপ্তর আইএসপিআর একটি সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানিয়েছে।

আইএসপিআর জানিয়েছে, মালির স্থানীয় সময় দুপুর আড়াইটার দিকে দোয়েঞ্জা নামক স্থানে ভয়াবহ আইইডি বিস্ফোরণে চার বাংলাদেশি শান্তিরক্ষী নিহত ও আরো চারজন আহত হয়।

ওই এলাকায় আগের দিন একই ধরণের ঘটনায় মালির চারজন সেনা সদস্য নিহত হয়েছে।

এর আগে গত বছরের সেপ্টেম্বর মাসে মালিতে বিদ্রোহীদের হামলায় তিন বাংলাদেশি শান্তিরক্ষী নিহত আর চারজন আহত হয়েছিল।

২০১৫ সালে সন্ত্রাসীদের গুলিতে একজন বাংলাদেশি শান্তিরক্ষী নিহত হয়।

ছবির কপিরাইট ISPR
Image caption মালিতে টহলরত বাংলাদেশি শান্তিরক্ষীরা

দেশটিতে এখন আটশো জন বাংলাদেশি সেনা সদস্য জাতিসংঘের শান্তিরক্ষার কাজে নিয়োজিত রয়েছে। এর বাইরে বাংলাদেশ পুলিশের অনেক সদস্যও দেশটিতে শান্তিরক্ষী হিসাবে কাজ করছেন।

২০১৩ সাল থেকে মালিতে কাজ করছে আন্তর্জাতিক শান্তিরক্ষী বাহিনী।

১৯৬০ সালে ফ্রান্সের কাছ থেকে স্বাধীনতা লাভের পর থেকে মালির ইতিহাস অস্থিরতায় পরিপূর্ণ।

দীর্ঘ সামরিক শাসন এবং গোষ্ঠিগত সংঘাতে বিপর্যস্ত এ দেশটিতে বাংলাদেশের শান্তিরক্ষীরা কাজ শুরু করে ২০১৪ সালের এপ্রিল মাসে।

২০১২ সাল থেকে দেশটিতে সংঘাতের জোরালো হয়। দেশটিতে স্থিতিশীলতা রক্ষার জন্য সরকার ও বিদ্রোহীদের মধ্যে শান্তিচুক্তি হলেও সেটি টেকসই হয়নি।