ঢাকা সিএমএইচে এখন কেমন আছেন জাফর ইকবাল

ছবির কপিরাইট ফেসবুক
Image caption মুহম্মদ জাফর ইকবাল

বাংলাদেশের ঢাকায় সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে চিকিৎসাধীন শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক ও লেখক মুহম্মদ জাফর ইকবাল এখন সজ্ঞান, সচেতন ও আশঙ্কামুক্ত আছেন বলে জানিয়েছে তার চিকিৎসার জন্য গঠিত মেডিকেল বোর্ড।

সকালে মেডিকেল বোর্ড তাকে পর্যবেক্ষণের পর এক সংবাদ সম্মেলনে মেজর জেনারেল মুন্সি মুজিবুর রহমান জাফর ইকবালের সর্বশেষ পরিস্থিতি তুলে ধরেন।

ওদিকে শনিবার রাতেই শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের পক্ষ থেকে থানায় একটি অভিযোগ করা হয়েছে যেখানে বলা হয়েছ ফয়জুর রহমান ওরফে ফয়জুল নামের এক যুবক ধারালো অস্ত্র দিয়ে তাকে আঘাত করেন।

বাংলাদেশের ডাক্তাররা রোগীদের সময় দেয়না কেন?

অস্কার: তারকারা খাবেন কী? গিফট ব্যাগে কী থাকবে?

ত্রিপুরায় কেন জিতলো বিজেপি'র জোট? পাঁচটি কারণ

অধ্যাপক মুহম্মদ জাফর ইকবাল সিলেটে ছুরিকাহত

এদিকে জাফর ইকবালের ওপর হামলার প্রতিবাদে শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়সহ দেশের প্রায় সব বিশ্ববিদ্যালয় ও বেশ কিছু শহরে মানববন্ধনসহ বিভিন্ন কর্মসূচি পালনের খবর পাওয়া যাচ্ছে।

বিশ্ববিদ্যালয়ের ইলেকট্রনিকস অ্যান্ড ইলেকট্রিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং (ইইই) বিভাগের 'ট্রিপল-ই ফেস্টিভ্যাল'-এর সমাপনী অনুষ্ঠানে জাফর ইকবালের ওপর হামলা চালায় এক যুবক।

এসময় মিস্টার ইকবালের নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকা পুলিশ সদস্যরাও সেখানে ছিলেন।

ঘটনাস্থলেই হামলাকারীকে ধরে ফেলে ছাত্র শিক্ষকরা।

এখন কেমন আছে জাফর ইকবাল?

মিস্টার রহমান জানান, ঢাকা সিএমএইচে আনার পর পরীক্ষা নিরীক্ষা ও চিকিৎসা হয়েছে এবং একটি মেডিকেল বোর্ড গঠন করা হয়েছে। আজ সকালে আবারও তারা পরীক্ষা করেছে"।

তিনি বলেন জাফর ইকবাল এখন সজ্ঞান, সচেতন ও আশঙ্কামুক্ত আছেন। তবে তবে দ্রুত আরোগ্যের জন্য দর্শনার্থী প্রবেশ নিয়ন্ত্রণ করা হচ্ছে। সুস্থ হতে তাকে কয়েকদিন হাসপাতালে থাকতে হবে।

আজ সকালে পানি জাতীয় জিনিস খেতে দেয়া হয়েছে এবং তিনি খেতে পারছেন বলেও জানান তিনি।

এ মুহূর্তে চিকিৎসার জন্য বিদেশে নেয়ারও কোন প্রয়োজনীয়তা তারা দেখছেননা বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

আঘাত কোথায় লেগেছে?

মেজর জেনারেল মুন্সি মুজিবুর রহমান বলেন উনার মাথায় ছোট ছোট চারটি আঘাত রয়েছে। আর পিঠের ওপরের দিকে একটা ও বাম হাতে একটা আঘাত পেয়েছেন।

তিনি বলেন চিকিৎসকরা তাঁর পুরো শরীর স্ক্যান করেছেন। এছাড়া তাঁর মানসিক অবস্থা ভালো। স্বাভাবিক কথা বার্তা বলছেন ও চিকিৎসায় সহযোগিতা করছেন।

তবে নিবিড় পর্যবেক্ষণ কেন্দ্রে থাকায় কাউকে দেখা করতে দেয়া হচ্ছেনা। যদিও তার স্ত্রী কন্যা সহ পরিবারের সদস্যরা রয়েছেন।

এর আগে শনিবার রাত ১১টা ৫৮ মিনিটে সিএমএইচে পৌঁছান যখন সব ধরনের বিশেষজ্ঞ হাজির ছিলো বলে জানান মিস্টার রহমান জানান।

তিনি বলেন, "আমরা সার্বক্ষণিক খবর আগে থেকেই নিচ্ছিলাম, বিমানবন্দর থেকেই আমাদের লোকজন দ্রুত তাকে নিয়ে আসে।

কাউকে দোষ দেইনা: স্ত্রী ইয়াসমিন হক

জাফর ইকবালের স্ত্রী ইয়াসমিন হক সাংবাদিকদের বলেন, "আমি সবার জন্য দোয়া চাই জাফর ইকবালের জন্য"।

এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, "আমরা তো ২৪ ঘণ্টাই পুলিশ থাকে। অসম্ভব ভাবে প্রটেকশন দিয়েছে আমাদের। কাউকে দোষ দেয়া উচিত নয়। এটা মুক্ত মঞ্চ। অনেক লোক দাঁড়াচ্ছে। এসবির একজন বাঁধা দিয়েছে ও আহতও হয়েছে"।

ইয়াসমিন হক বলেন, "হুমকি তো আমাদের বছর বছর দিচ্ছে, কাফনের কাপড় পাঠিয়েছে তাহলে কি আমরা জেলে থাকা আরম্ভ করবো"।

তিনি বলেন, "আমি কাউকে দোষ দেইনা। আমাদের স্টুডেন্টদের সাথে আমরা মুক্তভাবেই ইন্টারেক্ট করবো"।

সম্পর্কিত বিষয়