ইস্পাতে করারোপ করার ট্রাম্পের সিদ্ধান্তে রিপাবলিকানরা উদ্বিগ্ন কেন?

ছবির কপিরাইট বিবিসি
Image caption প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প

এবার খোদ রিপাবলিকানরাই উদ্বিগ্ন হয়ে উঠেছেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের কর পরিকল্পনা নিয়ে। ইউরোপ থেকে আমদানি করা স্টিল ও অ্যালুমিনিয়ামের ওপর শুল্ক আরোপের পরিকল্পনা করার পর থেকেই ঘরে-বাইরে সমালোচনার মুখে আছেন মিঃ ট্রাম্প।

তার দলের প্রথম সারির আইনপ্রনেতারা এখন মিঃ ট্রাম্পের সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে অবস্থান নিয়ে এই সিদ্ধান্ত বাতিল করার আহ্বান জানাচ্ছেন।

যদিও মিঃ ট্রাম্প নিজের অবস্থান পরিবর্তন না করার ঘোষণা দিয়েছেন।

কিন্তু রিপাবলিকানদের উদ্বেগের কারণ কি?

গত সপ্তাহে ইউরোপ থেকে আমদানি করা স্টিল বা ইস্পাতের উপরে মিঃ ট্রাম্পের কর আরোপের পরিকল্পনা ইউরোপসহ সারা পৃথিবীতেই ব্যাপক সমালোচনার জন্ম দিয়েছে।

এর জবাবে ইতিমধ্যেই আমদানিকৃত মার্কিন পণ্যের উপরে পাল্টা করারোপের হুমকি দিয়েছে ইউরোপ।

ফলে নতুন এক বাণিজ্য যুদ্ধের আশংকা দেখা দিয়েছে।

কিন্তু এমন আশংকার পরেও মিঃ ট্রাম্প নিজের পরিকল্পনা থেকে পিছিয়ে আসবেন না বলে ঘোষণা দিয়েছেন।

ইজরায়েলী প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহুর সাথে হোয়াইট হাউজে এক বৈঠকের সময় নিজের এ মনোভাবের কথা স্পষ্ট জানিয়েছেন মিঃ ট্রাম্প।

ছবির কপিরাইট বিবিসি
Image caption যুক্তরাষ্ট্রের স্পিকার পল রায়ান

আর বাণিজ্য যুদ্ধ হলেও, তাতে মিঃ ট্রাম্প জিতবেন বলে 'খুবই আত্মবিশ্বাসী', বলে জানিয়েছেন হোয়াইট হাউসের প্রেস সেক্রেটারি সারাহ হাকাবি সেন্ডার্স।

তবে, মিঃ ট্রাম্পের বক্তব্যের এক ঘণ্টা আগে স্পিকার পল রায়ান কর আরোপের সিদ্ধান্ত থেকে মিঃ ট্রাম্পকে সরে আসার আহ্বান জানিয়েছিলেন।

এক বিবৃতিতে তিনি বলেছেন, ইউরোপের সঙ্গে কোন ধরণের বাণিজ্য যুদ্ধ বেধে গেলে, তার ফলাফল বা প্রভাব নিয়ে উদ্বিগ্নবোধ করছেন তারা।

মিঃ ট্রাম্পের কর ব্যবস্থা নতুন করে সংস্কার করার ফলে দেশের অর্থনীতিতে যে অগ্রগতি হয়েছে, ইউরোপের সাথে খারাপ সম্পর্কের ফলে তা শেষ হয়ে যেতে পারে—এমন আশংকা করেছেন মিঃ রায়ান।

তাছাড়া এই সিদ্ধান্ত অ্যামেরিকাকে অর্থনৈতিকভাবেও লাভবান করবে না বলেই তিনি মনে করছেন।

আর এ সমালোচনা এখন আরো ব্যাপক রূপ নিয়েছে রিপাবলিকানদের মধ্যে।

আরো পড়ুন:কিভাবে চালানো হয় অনলাইনে রুশ 'প্রচারণা যুদ্ধ'?

বিশিষ্ট ব্যক্তিদের নিরাপত্তা দেয়া কতটা কঠিন?