উড়ন্ত গাড়ির স্বপ্ন কি এবার বাস্তব হয়ে ওঠার পথে?

ছবির কপিরাইট .
Image caption উড়ন্ত গাড়ি লিবার্টি

একটি ডাচ কোম্পানি তাদের প্রথম উড়ন্ত গাড়ি বাজারে ছেড়েছে।

জেনেভা মোটর শোতে প্যাল-ভি নামের এই কোম্পনি তাদের তৈরি এই তিন চাকার গাড়ি-কাম-হেলিকপ্টার প্রদর্শন করেছে।

এর মাথার ওপর হেলিকপ্টারের মতোই রোটর বা পাখা রয়েছে যা ভাঁজ করে রাখা যায়। পেছন দিকে রয়েছে আরো একটি প্রপেলার।

এর নাম দেয়া হয়েছে 'লিবার্টি' - এবং মাটির ওপর গাড়ি হিসেবে চলার সময় এই যানটির সর্বোচ্চ গতি হবে ঘন্টায় ৯৯ মাইল, আর ওড়ার সময় সর্বোচ্চ গতি হবে ঘন্টায় ১১২ মাইল।

আরো পড়ুন:

ভবিষ্যতের বাসের যাত্রা শুরু বর্তমানের চীনে

ফেসটাইম প্রযুক্তি যেভাবে বাঁচিয়ে দিল জীবন

মোবাইল ফোন আমাদের শরীরের কতটা ক্ষতির কারণ?

ব্রিটিশ মুদ্রায় এর দাম হবে ২ লাখ ৬৮ হাজার পাউন্ড।

'ইউ ওনলি লিভ টুয়াইস' নামের স্পাই থ্রিলার ছবিতে জেমস বন্ড একটি উড়ন্ত গাড়ি চালিয়েছিলেন - যার নাম ছিল 'লিটল নেলি'। নেদারল্যান্ডের কোম্পানির তৈরি এই লিবার্টি নামের 'জাইরোকপ্টার' অনেকটা সে রকমই।

ছবির কপিরাইট বিবিসি
Image caption উড়ন্ত গাড়ি

তবে 'লিটল নেলি'-র চাইতে লিবার্টি আকারে অনেক বড় এবং বিলাসবহুল।

এখন প্রশ্ন হলো, এর মধ্যে দিয়ে কি অবশেষে উড়ন্ত গাড়ির স্বপ্ন সফল হলো?

প্যাল ভি কোম্পানির প্রধান নির্বাহী রবার্ট ডিঙ্গেমান্স বলেন, "লিবার্টিকে নিয়ে আপনি আপনার গ্যারেজ থেকে যাত্রা শুরু করতে পারবেন এবং সোজা আপনি যেখানে যেতে চান সেখানে গিয়ে নামতে পারবেন।"

কিন্তু ল্যাংকাস্টার বিশ্ববিদ্যালয়ের এনার্জি রিসার্চ সেন্টারের প্রধান হ্যারি হোস্টার বলছেন, জাইরোকপ্টারের সুবিধে হলো এটা খুব কম জায়গার মধ্যে নামতে পারে। কিন্তু ওড়ার সময় তাকে সামনের দিকে ছুটে একটা গতিবেগ সঞ্চয় করতে হয়। তাই বাড়ির ছাদ থেকে এটা উড়তে পারবে না।

তা ছাড়া ঘনবসতি পূর্ণ এলাকায় এটা ওড়ানোর সমস্যা রয়েছে। কারণ এর পাখা ঘোরার জন্য চারপাশে অনেকটা ফাঁকা জায়গা দরকার। তার পর রয়েছে শব্দের সমস্যা।

ছবির কপিরাইট .
Image caption টেরাফুগিয়ার তৈরি উড়ন্ত গাড়ি

প্যাল-ভি অবশ্য একমাত্র কোম্পানি নয় যারা বাণিজ্যিকভাবে উড়ন্ত গাড়ি তৈরির চেষ্টা করছে।

আমেরিকান কোম্পানি টেরাফুগিয়া এক ধরণের উড়ন্ত গাড়ি তৈরি করেছে, যার প্লেনের মতোই পাখা আছে, এবং তা মাটিতে নামার পর সুন্দরভাবে ভাঁজ করে রাখা যায়।

এর প্রধান নির্বাহী ক্রিস জারান বলছেন, "এ গাড়ি আপনার গ্যারেজে থাকতে পারে। আপনি এটা চালিয়ে এয়ারপোর্টে যাবেন, তার পর উড়ে অন্য এয়ারপোর্টে যাবেন, তার পর পাখা ভাঁজ করে নিয়ে আবার গাড়িতে পরিণত হয়ে আপনার গন্তব্যে চলে যাবেন।" এর দাম হবে দু'লাখ আশি হাজার মার্কিন ডলার।

সমস্যা হচ্ছে এ জন্য আপনার একটা বিমানবন্দর ব্যবহার করতে হবে।

এরকম আরো কিছু কোম্পানি উড়ন্ত গাড়ি তৈরি করছে। কিন্তু তবু ব্যক্তিগত উড়ন্ত গাড়ির সামনে এখনো বহু সমস্যা রয়েছে ।

কারণ গাড়ি চালানো আর যে কোন রকম বিমান ওড়ানোর মধ্যে অনেক তফাৎ।

উড়ন্ত গাড়ি চালাতে হলে আপনার পাইলটের লাইসেন্স লাগবে।

আরো পড়ুন:

বাংলাদেশে মেয়েরা কি এখন রাজনীতি-বিমুখ হয়ে উঠবে?

হত্যাপ্রচেষ্টার অভিযোগে ভারতীয় দল থেকে বাদ শামি

'মহিলা মানে পার্টির মত সেজে ফুল নিয়ে দাঁড়িয়ে থাকা'