রংপুরে হোশি কুনিও হত্যা মামলার কৌঁসুলি নিখোঁজ

ছবির কপিরাইট Getty Images
Image caption এখানেই হত্যা করা হয়েছিল হোশি কুনিওকে

রংপুরের জাপানি নাগরিক হোশি কুনিও ও মাজারের খাদেম রহমত আলী হত্যা মামলার সরকারি কৌঁসুলি রথীশ চন্দ্র ভৌমিককে শুক্রবার ভোর থেকে খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না বলে জানিয়েছেন তার পরিবার।

পুলিশ জানিয়েছে, এ বিষয়ে তদন্ত চলছে।

নিখোঁজ আইনজীবী রথীশ চন্দ্র ভৌমিকের স্ত্রী দীপা ভৌমিক জানান, শুক্রবার ভোর ৬টার দিকে রথীশ চন্দ্র বাড়ি থেকে বেরিয়ে যান। কিছুক্ষণের মধ্যে ফিরে আসবেন জানালেও পরে তার কোন খোঁজ মেলেনি। তার মোবাইল ফোনটি বন্ধ পাওয়া যায়।

বিবিসি বাংলার সংবাদদাতা সানজানা চৌধুরী জানাচ্ছেন, মি. ভৌমিকের স্বজন ও আইনজীবী সহকর্মীরা বিভিন্ন স্থানে খোঁজাখুঁজির পরও কোন সন্ধান না পেয়ে শুক্রবার রাতে রংপুর থানায় একটি সাধারণ ডায়রি করেন।

নিখোঁজের ভাই বিষয়টি সুশান্ত ভৌমিক জানান, জঙ্গিদের মামলা পরিচালনা এবং সেই সঙ্গে মানবতাবিরোধী অপরাধ ট্রাইব্যুনালের সাক্ষী হওয়ার কারণে তার ভাইকে পরিকল্পিতভাবে অপহরণ করা হয়ে থাকতে পারে বলে তারা আশংকা করেন।

বিবিসি বাংলায় আরো পড়ুন:

ছেলে হারানো ইমামের মাইকিং ঠেকিয়ে দিল আরেকটি দাঙ্গা

'শিরশ্ছেদ ভুল ছিল': আইএসের গলাকাটা গ্রুপের দুজন

দেশের হয়ে আর খেলা হবে না, মেনেই নিয়েছেন ওয়ার্নার

গাজায় ফিলিস্তিনি-ইসরায়েলি সংঘাতে এত মৃত্যু কেন?

বাংলাদেশে সাম্প্রতিক সময়ের আলোচিত ঘটনার মধ্যে ছিলো বেশ কয়েকজনের রহস্যজনক গুম এবং তাদের মধ্যে থেকে কয়েকজনের ফিরে আসার ঘটনা।

তবে প্রতিবারই এসব ঘটনার পেছনে জড়িতদের বিষয়টি ছিলো পর্দার আড়ালে।

সেই রহস্যের জাল কাটতে না কাটতেই এবার রংপুরের আইনজীবী রথীশ চন্দ্র ভৌমিকের নিখোঁজের ঘটনা নতুন করে চাঞ্চল্যের জন্ম দিয়েছে।

তবে এ ঘটনাকে এখনো অপহরণ বলে দাবি করছে না পুলিশ।

রংপুর কোতোয়ালি থানার ওসি বাবুল মিয়া জানান, সম্ভাব্য সব কারণকে সামনে রেখেই তারা অভিযান পরিচালনা করছেন।

তারা এ পর্যন্ত যে তথ্য পাওয়া গেছে তার সূত্র ধরে দ্রুতই রথীশ চন্দ্রের খোঁজ পাওয়ার ব্যাপারে আশাবাদ প্রকাশ করেন তিনি।

রথীশ চন্দ্র ছিলেন রংপুর আইনজীবী সমিতির নির্বাচিত কোষাধ্যক্ষ, হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের রংপুর বিভাগের ট্রাস্টি, পূজা উদযাপন পরিষদের জেলা সভাপতি এবং জেলা আওয়ামী লীগের আইন বিষয়ক সম্পাদক।

এছাড়া তিনি সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটসহ বিভিন্ন সামাজিক সংগঠনেরও প্রথম সারির নেতা। তা

এদিকে রথীশ চন্দ্র নিখোঁজের প্রতিবাদে স্থানীয়রা আজ সকালে রংপুর-কুড়িগ্রাম মহাসড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ শুরু করলেও পরে পুলিশের আশ্বাসে তারা সরে দাঁড়ান। পরে যান চলাচল স্বাভাবিক হয়।

সম্পর্কিত বিষয়