ভারতে দলিতদের ঘোড়ায় চড়াও অপরাধ?

Image caption ভারতের বিভিন্ন অঞ্চলে ঘোড়ার মালিক হওয়া এক ধরনের আভিজাত্য বা ক্ষমতার বহি:প্রকাশ

ভারতের দলিত সম্প্রদায়ের এক তরুণ কৃষককে পিটিয়ে হত্যার পর জানা গেছে তার একমাত্র অপরাধ ছিলো ঘোড়ায় চড়া।

সে ঘোড়াটি ছিলো তার নিজেরই, আর সেটিও তার আরও একটি অপরাধ !

ঘটনাটি গুজরাটের আর সেখানকার পুলিশ বলছে এ ঘটনার পর উচ্চ বর্ণের তিনজনকে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।

ধর্ষণ নিয়ে টিভিতে হাস্যরসের পর ফেসবুকে ঝড়

যিশু: ইতিহাসের চোখে তাঁর আসল চেহারাটি কেমন

পৃথিবীর দিকে ছুটে আসছে জ্বলন্ত মহাকাশ কেন্দ্র

ঘোড়ায় চড়া ওই অঞ্চলে উচ্চ বর্ণের লোকদের একটি আভিজাত্যের প্রতীক হিসেবে বিবেচনা করেন তাদের কেউ কেউ।

নিহত তরুণের পিতা বলছেন তার সন্তানকে ঘোড়ায় না চড়তে বারবার সাবধান করে দেয়া হয়েছে কারণ এটি ছিলো 'উচ্চ বর্ণের বিষয়'।

ভারতের বিভিন্ন অঞ্চলে ঘোড়ার মালিক হওয়া এক ধরনের আভিজাত্য বা ক্ষমতার বহি:প্রকাশ।

Image caption গুজরাটে ঘোড়ায় চরার অপরাধে দলিত ব্যক্তিকে খুনের অভিযোগ

নিহত তরুণের নাম প্রদীপ রাঠোর। তার বয়স ছিলো ২১ বছর।

বৃহস্পতিবার গুজরাটের তিমবি গ্রামে তার মৃতদেহ পাওয়া যায়, সাথে পাওয়া গেছে তার ঘোড়াটিরও মৃতদেহ।

পরে পুলিশের কাছে অভিযোগে তার পিতা জানান যে প্রদীপ ঘোড়া খুবই ভালোবাসতো আর সে কারণেই সে একটি ঘোড়া কিনেছিল।

"ঘোড়াকে ভালোবাসাই আমার সন্তানকে মৃত্যুর কাছে নিয়ে গেলো," সংবাদ মাধ্যমকে এভাবেই বলেছেন প্রদীপ রাঠোরের পিতা।

তিনি বলছেন সপ্তাহ খানেক আগে ছেলের সাথে তিনি যখন ঘোড়ায় চড়েছিলেন তখনি উচ্চ বর্ণের লোকজন তাকে শাসিয়ে বলেছে আর যেনো ঘোড়ায় না চড়ে।

তার দাবি ঘোড়াটি বিক্রি না করে দিলে মেরে ফেলা হবে বলেও হুমকি দেয়া হয়েছিলো তখন।

সম্পর্কিত বিষয়