ভারতের কেরালায় বিয়ের ছবি থেকে পর্নো, স্টুডিও মালিক আটক

ছবির কপিরাইট ফেকএ্যাপ
Image caption বিভিন্ন এ্যাপ ব্যবহার করে একজনের মাথার সাথে আরেকজনের দেহ জুড়ে দেবার প্রবণতা নিয়ে এর আগেও খবর বেরিয়েছে

ভারতের কেরালা রাজ্যে একটি ফটো স্টুডিও তাদের তোলা মহিলাদের ছবি পর্নোগ্রাফিক উদ্দেশ্যে ব্যবহার করছে বলে অভিযোগ ওঠার পর পুলিশ দুজনকে গ্রেফতার করেছে।

সদায়ম নামের এই স্টুডিও বিশেষ করে বিয়ের ছবি তোলে।

অভিযোগে বলা হচ্ছে বিভিন্ন বিয়ের অনুষ্ঠানে আসা মেয়েদের ছবিতে পরিবর্তন ঘটিয়ে তা থেকে পর্নো ছবি তৈরি করা হচ্ছিল, এবং তা সামাজিক মাধ্যমে ছড়ানো হচ্ছিল।

ভাডাকারা শহরের 'সদায়ম শুট এন্ড এডিট' নামের স্টুডিওটির বিরুদ্ধে করা অভিযোগে বলা হয়, বেশ কিছু স্থানীয় মহিলা দেখতে পান যে তাদের বিয়ের ছবিতে পরিবর্তন ঘটিয়ে বিকৃত করে সামাজিক মাধ্যমে ছাড়া হয়েছে।

আরো পড়ুন:

'রাশিয়ার সাথে পশ্চিমের যুদ্ধ লেগে যেতে পারে'

ইউটিউবের দফতরে হামলাকারী নারীর বিচিত্র জীবন

পাবনায় কথিত সমকামী বিয়ে, এলাকায় আলোড়ন

স্ত্রীর দেয়া তথ্যে মিলল নিখোঁজ রথীশ চন্দ্রের মৃতদেহ

ছবির কপিরাইট .
Image caption ইন্টারনেট পর্নের সোর্স হিসেবে ভারতের নাম চার নম্বরে, বলছে এক জরিপ

কেরালার সংবাদ মাধ্যমগুলো বলছে, এতে ওই এলাকায় আতংক তৈরি হয়। কেরালার রাজ্য নারী কমিশন এ নিয়ে এক মামলা দায়ের করে।

পুলিশ এ ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে।

স্টুডিওটির দুই মালিক দীনেশম এবং সতীশনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। স্টুডিওটিও পুলিশ বন্ধ করে দিয়েছে এবং দলিলপত্র জব্দ করেছে।

অ্যাডাল্ট সাইট পর্নহাব ২০১৫ সালে যে বিশ্বব্যাপী স্ট্যাটিসটিকস প্রকাশ করে তাতে দেখা যায় - সারা পৃথিবীতে ইন্টারনেটে পর্নো ট্র্যাফিকের উৎস বা সোর্স হিসেবে ভারতের নাম আছে চার নম্বরে, আমেরিকা, যুক্তরাজ্য ও কানাডার ঠিক পরেই।

সে বছরই ভারতে টেলিকম মন্ত্রণালয় ৮৫০টিরও বেশি পর্নোগ্রাফিক ওয়েবসাইট ব্লক করার জন্য আইএসপিগুলোকে নির্দেশ দেয়। কিন্তু তার মাত্র দিনদশেকের মধ্যেই সরকার তা থেকে পিছিয়ে আসে।

বিবিসি বাংলায় আরো পড়ুন:

একজনের মাথা, আরেকজনের দেহ: ভুয়া পর্নো

ভারতে পর্নোগ্রাফি: বেডরুমে উঁকি দেয়া সম্ভব নয়

সম্পর্কিত বিষয়